২০, অক্টোবর, ২০২০, মঙ্গলবার | | ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

আজ ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসের ৪৮ বছর পূতি

আপডেট: মার্চ ২৬, ২০১৯

আজ ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসের ৪৮ বছর পূতি

রাজু আহমেদ // ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস। কালারাত্রির পর রক্তে রাঙা নতুণ সূর্য উঠেছিল ১৯৭১ সালের এই দিনে। পরাধীনতার শৃঙ্খল ভেঙে ১৯৭১ সালের এই দিনে বিশ্বের বুকে বাংলাদেশ স্বাধীন অস্তিত্ব ঘোষিত হয়েছিল। এ ঘোষনার মাধ্যমে স্বাধীনাতার জন্য সশস্ত্র যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল জাতি। র্দীঘ নয় মাস রক্তপাত আর অজ¯্র প্রাণের বিনিময়ে অর্জিত হয় মহান স্বাধীনতা। এবার জাতি স্কাধীনতার ৮৪ বছর পালন করছে। একাত্তরের অর্জন বলতে, একটি ভাষা, সার্বভৌম ভূমিম মুক্ত বাতাসে নিঃশ্বাস আর বাক স্বাধীনতা। অবশ্য এই ২৬এ মার্চ বাঙ্গালীকে মনে করিয়ে দেই, বঙ্গোবন্ধুর এতিহাসিক ৭ মার্চ এর সেই ভাষণ “ এবারের সংগ্রাম স্বাধনতার সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম”। অশেষ আতœত্যাগের বিনিময়ে রাজনৈতিক স্বাধীনতা আমরা অর্জন করতে পেরেছি। মঙ্গলবার ভোরে সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গেই বাঙালী জাতির জীবনে সূচনা ঘটবে আরও একটি ঝলমল উৎসব দিনের। এক সাগর রক্তের বিনিময়ে অর্জত এই স্বাধীনতা দিবস। এ ভূ- ভাগের সবচেয়ে বড় অর্জণ বাঙালীর সহ¯্র বছরের জীবন কাঁপানো ইতিহাস মহান স্বাধীনতা। অসংখ্য শহীদের রক্তে ভেজা, জাতির বীরসেনানীদের রক্ত¯œাত মুক্তিযুদ্ধের সূচনার দিন।বাঙালী জাতির আহংকারের দিন। ২৬ মার্চ মঙ্গলবার, সরকারির ছুটির দিন। আর এই দিনে নানা অনুষ্ঠানিক ভাবে সরকারি – বেসরকারি পর্যায়ে স্বাধীনতা দিবস পালিত হবে। জাতি বিন¤্রশ্রদ্ধায় স্বরণ করবে যুদ্ধে আতেœাৎসর্গকারী বীর শহীদদের, যারা জীবনকে তুচ্ছ করে ছিনিয়ে এনেছিল স্বাধীনতার লাল সূর্য। স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি মোহম্মদ আবদুল হামিদ এবং মাননীয় প্রধান মন্ত্রীসহ বিরোদী দলের নেতা কর্মীরাও ভিন্ন ভিন্ন ভাবে এই স্বাধীনতা দিবস পালন করে থাকবে। সব সরকারি বেসরকারি ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। মির্জাপুর স্মৃতিসৌধে ভোর ৫ টার পর পুষ্পস্তবক অর্পনের মধ্য দিয়ে মহান শহীদের প্রতি জাতি শ্রদ্ধা নিবেদন পর্ব শুরু করে। আর ফুলে ফুলে ভরে যাই জাতীয় স্মৃতিসৌধ। ১৯৭১ সালের ২৫ শে মার্চ রাতে পাকিস্তানি বাহিনী হামলা করে ঘুমন্ত নিরিহ বাঙালীর উপর। আর সে রাতেই পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর হাতে বন্দি হয়, জাতির জনক বঙ্গোবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান। অবশেষে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্ব্র বাংালাদেশ – ভারত যৌথ বাহিনীর কাছে আন্তসমর্পন করে হানাদার পাকিস্তানী বাহিনী। পৃথিবীর মানচিত্রে নতুন দেশের অভ্যুদয় ঘটে, যার নাম বাংলাদেশ।