২৭, অক্টোবর, ২০২০, মঙ্গলবার | | ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

কবর খুঁড়ে কঙ্কাল চুরি,অতপরঃ গ্রেফতার,দিলো লোমহর্ষক তথ্য

আপডেট: মার্চ ৩১, ২০১৯

কবর খুঁড়ে  কঙ্কাল চুরি,অতপরঃ গ্রেফতার,দিলো লোমহর্ষক তথ্য

মহিদুল আলম চঞ্চল:গভীর রাতে কবর খুড়ে কাফনের কাপর থেকে  হাড়,মাথার খুলি আলাদা করি,আর লোকজন দেখলে কবরের ভিতরেই লুকিয়ে থাকি,তারপর সুযোগ বুঝে কঙ্কাল নিয়ে বস্তাবন্দী করে নিরাপদে চলে আসি,এমনি লোমহর্ষক ঘটনার বর্ননা দিচ্ছিলেন কঙ্কাল চুর মুসা।

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের পূর্বনিজমাওনা গ্রামের পুরাতন কবর থেকে কঙ্কাল চুরি হওয়ার পরদিন ৩১ মার্চ রবিবার সকাল সাড়ে ৮টায় স্থানীয় এলাকাবাসীর হাতে কঙ্কালসহ ধরা পড়েছে চোর ।

জনতার হাতে আটক কঙ্কাল চোর জামালপুর সদর উপজেলার পিয়ারপুর গ্রামের মৃত রহমানের ছেলে শরিফুল ইসলাম (মুসা) (৩০)।

সে উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের নিজ মাওনা গ্রামের নিউ গোল্ডেন এগ্রো ফার্মস লিমিটেডে চাকরি করে। এসময় এলাকাবাসীরা ক্ষিপ্ত হয়ে গোল্ডেন ফিড মিল ভাঙচুর করে। ঘটনাস্থলে শ্রীপুর থানা পুলিশ গিয়ে নিয়ন্ত্রণে আনে।

আটককৃত মুসা আরও জানান, তার সহযোগী সহোদর ভাগিনা ময়মনসিংহ সদর উপজেলার কালিবাড়ি এলাকার নুরু সাধুর ছেলে সোহেল (২৫)। দীর্ঘদিন যাবৎ সোহেল কঙ্কাল চুরির সাথে জড়িত। প্রতিটি কঙ্কালের বিনিময়ে মুসা পেত এক হাজার টাকা। সোহেল বর্তমানে গাজীপুরের (জিএমপি) বড়বাড়ি এলাকায় থাকে।

এলাকাবাসীর  তথ্য মতে,ফিড মিল এর মালিক,রফিকুল ইসলাম ওরফে টুইন্না মুন্সীর হাত থাকতে পারে,

ফিড মিলের ভেতর অসংখ্য কঙ্কাল থাকায় এলাকাবাসী তদন্তের মাধ্যমে তাকে আইনের আওতায় আনার জোর দাবি জানিয়েছে।

গতকাল ৩০ মার্চ গভীর রাতে কঙ্কাল চুরি করার জন্য উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের নিজ মাওনা গ্রামে পুরাতন কবর খুঁড়ে দুটি কঙ্কাল বস্তায় ভরে। আরেকটি কবর

খুঁড়ার সময় এলাকাবাসী টের পেয়ে যায়। তখন তারা পালিয়ে যায়।

শ্রীপুর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাকিব নাজমুল জানান, কঙ্কালসহ চোরকে আটক করা হয়েছে। তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।