২৫, নভেম্বর, ২০২০, বুধবার | | ৯ রবিউস সানি ১৪৪২

দিনাজপুর সরকারি কলেজ ক্যম্পাসে ভিক্ষুকের উৎপাত

আপডেট: নভেম্বর ২০, ২০১৮

দিনাজপুর সরকারি কলেজ ক্যম্পাসে ভিক্ষুকের উৎপাত
মো: তাফহিমুল ইসলাম ( দিনাজপুর সরকারি কলেজ প্রতিনিধি) : দিনাজপুর সরকারি কলেজের ক্যম্পাস খোলামেলা হওয়ায় এখানে বহিরাগতদের আনাগোনা থাকে বেশি। সারা দিনেই ক্যম্পাসে শিক্ষাথীদের অবস্থান।কিছু মানুষ ভিক্ষাকে পেশা হিসাবে গ্রহণ করে কমলমতি শিক্ষাথীদের কাছ থেকে বিভিন্ন অজুহাতে হাতিয়ে নিচ্ছে টাকা।যারা ভিক্ষা  করে তারাই প্রতিদিন ক্যম্পাসে  সাহায্যের নামে ভিক্ষা করে।তারা বলে তারা নাকি ভিক্ষুক নয় তাই তারা ভিক্ষা নিবেনা তাদেরকে সাহায্য করতে হবে। বিভিন্ন সমস্যার কথাবলে তারা প্রতিদিনিই ভিক্ষা করে।ক্যম্পাসে  প্রতিটি স্থানে তাদের বিচরণ। ক্যম্পাসে  একটু আড্ডা দিতেই তারা এসে হপজির হয়। এদের কেউ দাবি করে টাকা আবার কেহ খাবার। এদের কিছু বললে উল্টো তেড়ে  আসে শিক্ষাথীদের দিকে।

সরেজমিন দেখা যায়, কলেজ ক্যম্পাসেে যেখানে সেখানে অবাধে নানা অজুহাতে টাকা দাবি করছে। এক জনকে টাকা দিলে আরেক জন এসে হাত পাতে। ফলে শিক্ষাথীদের  অনেকই বিষয়টিতে বিরক্ত প্রকাশ করেন। গনিত বিভাগের ৩য় বষের ছাত্র রহিদুল ইসলাম বলেন, কোথাও একটু বসলেই তারা এসে হাত পাতে। তখন অনেকটা বাধ্য হয়েই তাদের কিছু না কিছু দিতে হয়। বেশ কয় একটি বিভাগের শিক্ষাথীদের  সাথে কথা বলে জানা গেছে, ক্লাসে ঢুকে নানা অজুহাতে টাকা তুলার ঘটনা।অনেকে বলে ক্লাসে স্যার না থাকলে হুটহাট করেই অনেকে ঢুকে বিভিন্ন  উছিলায় টাকা দাবি করে।তখন নিতান্ত বাধ্য হয়েই কিছু না কিছুু দিতে হয়।
ক্যম্পাসে ভিক্ষা বা সাহায়্য বন্ধের কথা বলা থাকলেও এর কোনো বাস্তবায়ন হয়নী। এবিষয়ে কলেজ অধ্যক্ষের সাথে কথা বলতে গেলে  তিনি না থাকায় তার সহকারি এনামুল হক জানায়, ক্যম্পাসে ভিক্ষা বন্ধের জন্য স্যার তাকে নিদের্শ দিছে।  তিনি আরো বলেন,ক্যম্পাসে  মাদক বন্ধে নানা কর্মসূচি গ্রহন করা হয়েছে।