৯, জুলাই, ২০২০, বৃহস্পতিবার | | ১৮ জ্বিলকদ ১৪৪১

ফুলবাড়িয়ায় শিক্ষা অফিসে দুদক

আপডেট: মে ২৭, ২০১৯

ফুলবাড়িয়ায় শিক্ষা অফিসে দুদক

হাবিব, ফুলবাড়ীয়া রতিনিধি// ফুলবাড়িয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের উচ্চমান সহকারি মো. আব্দুর রহমানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির তদন্তে রবিবার দুর্নীতি দমন কমিশন সমন্বিত জেলা কার্যালয় ময়মনসিংহের একটি তদন্ত টিম ফুলবাড়িয়ায় আসেন। তাঁরা দিনভর আনীত অভিযোগের প্রাথমিক তদন্ত করেন। উপজেলার বিভিন্ন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের আবেদনের প্রেক্ষিতে তাঁরা এ তদন্ত করেন।

অভিযোগ থেকে জানা যায়, ১২ বছর যাবত আব্দুর রহমান উক্ত পদে বহাল তবিয়তে। দীর্ঘ সময়ে টাইম স্কেল ও করেসপন্ডিং স্কেল, পেনশন ফাইল প্রস্তুত, সমতা বিধান, ভিক্ষুক পূনর্বাসন কর্মসূচীতে ১দিনের হ্যান্ড ক্যাশ গ্রহণ, অডিট ফেইসে ক্যাশ, শিক্ষক বদলীর নামে উৎকোচ, দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী নিয়োগে বকেয়া বিলের নামে টাকা গ্রহণ এবং পদ শুন্য থাকা সত্বেও চলতি দায়িত্ব প্রদান না করা সহ নানা অভিযোগ খতিয়ে দেখতে শিক্ষকরা দুদক’র দ্বারস্ত হন। এসব কাজে আ. রহমান অবৈধভাবে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে নিজ এলাকায় উপজেলার কান্দানিয়া যমুনারপাড়ে বিশাল বাড়ী নির্মাণ করেছেন। এ ছাড়াও বিভিন্ন স্থানে সম্পদও কিনেছেন বলে জানা গেছে। রবিবার সকালে দুদক টিম ফুলবাড়িয়ায় এসে প্রি-তদন্ত  শেষে বিশাল বাড়ী সরেজমিনে দেখতে কান্দানিয়ার যমুনারপাড় এলাকায় যান। উপজেলা শিক্ষা অফিসার জীবন আরা বেগম টিমের সাথে ছিলেন।

এ ব্যাপারে দুদক উপ পরিচালক সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, অভিযোগের প্রেক্ষিতে এসেছি প্রি-তদন্ত চলছে। চুড়ান্ত তদন্ত শেষে আপনাদের জানানো হবে।