৮, জুলাই, ২০২০, বুধবার | | ১৭ জ্বিলকদ ১৪৪১

হাসি মুখে কষ্ট লুকায় বাংলার সৈনিকেরা

আপডেট: নভেম্বর ২২, ২০১৮

হাসি মুখে কষ্ট লুকায় বাংলার সৈনিকেরা
 এ,কে,আজাদঃ খানসামা (দিনাজপুরপ্রতিনিধি)    যারা পৃথিবীর সবচাইতে ধৈর্যশীল এবং সবচেয়ে বেশি ত্যাগ স্বীকার করতে পারে! যে শত কষ্টের পরেও তার পরিবারকে কখনো কষ্ট বুঝতে দেয় না। যখন প্রচন্ড গরমের তাপে আপনি একটা পাতলা টি শার্ট পড়ে থাকেন,এসি কিংবা ফ্যানের বাতাস উপভোগ করেন।
 তখন সৈনিকেরা আপনার কাপড়ের তিন গুণ মোটা ইউনিফর্ম, নিরাপদ বুটজোতা,লেগ গার্ড, ২কেজি ওজনের বুলেটপ্রুফ, হেলমেট, ৪ কেজি ওজনের লোড ম্যাগাজিন, ৪ কেজির একটি হাতিয়ার এবং অনেকগুলো দায়িত্বের বোঝা নিয়ে রাস্তায় দাড়িয়ে থেকে আপনার নিরাপত্তা নিশ্চিত করে তাকে বলে সৈনিক।
 যখন প্রচন্ড বৃষ্টিতে আপনি নিরাপদ কক্ষে অবস্থান করেন তখন সৈনিক দুুটো টিনের নিচে চারপাশে খোলা ডিউটি পোস্টেই অবস্থান করে বজ্রপাতের আলোতে শত্রু খুজে তাকে বলে সৈনিক। হাড় কাপানো শীতে যখন আপনি আরাম করে শুয়ে থাকেন তখন সৈনিক খোলা আকাশের নীচে অন্ধকারে কোয়াশার চাদরে ঢাকা পড়ে।
 যখন বাবার মৃত্যু সংবাদ শোনার পরেও নিজের দায়িত্ব থেকে এক চুল নড়তে পারেন না তাকে বলে সৈনিক  এমন হাজারো দৃষ্টান্তে আমি চ্যালেন্জ করে বলতে পারি পৃথিবীর সবচাইতে ত্যাগী ও ধৈর্যশীল মানুষ হল সৈনিকরা।
 আপনার যারা উপরের অবস্থানে আছেন দয়াকরে সৈনিকদের অবহেলা করবেন না, ভুলে যাবেন না আপনাদের নিরাপত্তার সার্থে সৈনিকের জীবন বাজী রাখতে একটুও দ্বিধাবোধ করে না, আপনাদের রক্ষা করতে হাসিমুখে জীবন দিতে প্রস্তুত।