১৮, সেপ্টেম্বর, ২০২০, শুক্রবার | | ৩০ মুহররম ১৪৪২

কয়রায় যথাযথ মর্যাদায় আ:লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকি পালন

আপডেট: জুন ২৩, ২০১৯

কয়রায় যথাযথ মর্যাদায় আ:লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকি পালন

শাহ্ হিরো খুলনা জেলা প্রতিনিধি:
খুলনার কয়রায় যথাযথ মর্যাদায় নানা আয়োজনের মধ্যেদিয়ে পালিত হল বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ৭০ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকি। এ উপলক্ষে রবিবার সকালে কয়রা উপজেলা আওয়ামীলীগের দলীয় কার্য্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধু সহ জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পন ও কেক কাটা হয়।
এছাড়াও সকাল ১০টায় কয়রা উপজেলা আ’লীগ দলীয় কার্যলয় থেকে শত শত নেতা কর্মি নিয়ে এক বিশাল র‌্যালী বের হয়.র‌্যালীটি কয়রা সদরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে দলীয় কার্যলয়ে এসে শেষ হয়।
পরবর্তীতে দলীয় কার্যলয়ে আলোচনা সভায় উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান জি এম মোহসিন রেজার সভাপতিত্বে উপজেলার সাবেক ছাত্রলীগ আহবায়ক ইমদাদুল হক টিটুর সঞ্চালনায় আওয়ামীলীগ সভাপতি জি এম মোহসিন রেজা বক্তব্য কালে বলেন- আন্দোলন, সংগ্রাম আর অর্জনের বীরত্ব গাঁথা গৌরবময় ইতিহাসের উজ্জ্বল ঠিকানা বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ। জনসম্পৃক্ততা ও জনগণের মনের ভাষা উপলদ্ধিকরে ধারাবাহিকভাবে এগিয়ে যাওয়া মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্বদানকারী এই সংগঠনের প্রতিটি কর্মী বঙ্গবন্ধুর আর্দশে দেশ সেবার ব্রত নিয়ে কাজ করে যায়। আমরা সেই সংগঠনের কর্মী হতে পেরে গর্ব অনুভব করছি।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কয়রা উপজেলা চেয়ারম্যান ও যুবলীগ সভাপতি আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম তিনি বলেন,এ দেশের মাটি ও মানুষের প্রাণের সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ। এই সংগঠনের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা পেয়েছে আর তাঁর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একটি আধুনিক উন্নত বাংলাদেশ তৈরীতে দূর্র্বার গতিতে অপ্রতিরোধ্যভাবে কাজ এগিয়ে চলছে। কয়রা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম বাহারুল ইসলাম তিনি বলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে অসাম্প্রদায়িক শোসন হীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার লক্ষে যে বীজ রোপিত হয়ে ছিল আজ তার শুভ জন্মদিন পালিত হচ্ছে। সেই রাজনৈতিক বট বৃক্ষের নাম বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ।অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন রাখেন,উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কমলেশ কুমার সানা ,উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক নিশিত মন্ডল, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জাফরুল ইসলাম পাড় ,উপজেলা আওয়ামীলীগের যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক সিদ্দিক সানা, কোষাদোক্ষ বীর মুক্তিযোদ্ধা ইয়াকুব আলী ,বেদকাশী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান সরদার নুরুল ইসলাম, বাগালী ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ সভাপতি আব্দুস ছাত্তার পাড়, বীর মুক্তিযোদ্ধা এস এম নুর মোহাম্মদ ,

সাবেক ছাত্রলীগনেতা এফ এম রবিউল ইসলাম রবিন, মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ সভাপতি শামীম রেজা,জেলা ছাত্রলীগ সদস্য রুবেল, মৌওদুদ হাসান মিলন, কয়রা উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সালাউদ্দিন আহমেদ ,সাধারণ সম্পাদক এস এম সোহেল রানা সৌরভ,সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক রায়হান কবির চঞ্চল, ছাত্রনেতা অশোক কুমার বৈদ্য,রিয়াছাদ, আনিচ,আশিক,জাহাঙ্গির আলম আকাশ প্রমূখ

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন -কালের ধারাবাহিকতায় হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী বঙ্গবন্ধুর দুরদর্শী এবং অকুতো ভয় নেতৃত্বে ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের মধ্যেদিয়ে পৃথিবীর মানচিত্রে জায়গা করে নিয়েছিল যে দেশটি তার নাম বাংলাদেশ। ৪৭’এ দেশ বিভাগের পর বাংলার মানুষের মোহ ভঙ্গহতে এক বছরও সময় লাগেনি। ১৯৪৮ সনে পাকিস্থানী শোসক শাসক শ্রেনীর ধর্মের নামে সৃষ্ঠ পাকিস্থান নামক রাষ্ট্রের যে কথা বলেছিল বাঙ্গালীকে-তাকে ভেঙ্গে চুরমার করেদেয় রাষ্ট্র ভাষা বাংলা দাবিকে অস্বীকার করার মধ্যেদিয়ে। ঠিক তখনই বঙ্গবন্ধু, মওলানা ভাষানী, শামসুল হক প্রমূখ নেতৃত্বে পূর্ব পাকিস্থানে মুসলিম আওয়ামীলীগ প্রতিষ্ঠা হলেও দুরদর্শী নেতৃবৃন্দ মুসলিম শব্দটি বাদ দিয়ে অসাম্প্রদায়িক সংগঠন আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা করে।

সেই আওয়ামীলীগের নেতৃত্বে বিশ্বের মাঝে মাথা উচু করে দাড়াতে সক্ষম হয়েছে বাংলাদেশ। তাই সাবক্ষনিক ভাবে জনগনকে আওয়ামীলীগের পাশে থাকার আহবান জানান বক্তারা।আলোচনা সভা শেষে দেশের শান্তি ও অগ্রগতি কামনা করে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। এসময় কয়রা উপজেলা ,ইউনিয়ন, ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ ,ছাত্রলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।