৭, আগস্ট, ২০২০, শুক্রবার | | ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

রংপুর ০৬, পীরগঞ্জ আসনের নির্বাচনী আবহাওয়া

আপডেট: নভেম্বর ২৩, ২০১৮

রংপুর ০৬, পীরগঞ্জ আসনের নির্বাচনী আবহাওয়া

মো: আশিক প্রামানিক (পীরগঞ্জ,রংপুর প্রতিনিধি): রাজনৈতিক নানা দিক থেকে এ আসনটি সব দলের কাছেই গুরুত্বপূর্ণ। এ আসন থেকে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী আওয়ামীলীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা তিনবার, জাতীয় পার্টি চেয়াম্যান হুসাইন মোহাম্মাদ এরশাদ দুইবার প্রতিদ্বন্দ্বী করেন।
এক সময় এ আসনটিকে জাতীয় পার্টির দূর্গ বলা হত পরবর্তিতে ২০০৮ সালের নির্বাচনে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামীলীগ এর দখলে চলে আসে এবং ১৪ সালের উপ নির্বাচনে স্পীকার শিরিন শারমিন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় জয় লাভ করে জাতীয় সংসদের স্পীকার নির্বাচিত হন। এ আসনে জাতীয় পার্টি জনপ্রিয় নেতা  নুর মহাম্মাদ মন্ডল দুইবার এমপি নির্বাচিত হন। পরবর্তিতে ৮ সালের নির্বাচনে তিনি বিএনপি থেকে ধানের শীষ নিয়ে নির্বাচন করে শেখ হাসিনার কাছে পরাজিত হন ও ১৪ সালে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়াম্যান নির্বাচিত হয়। সম্প্রীতি সময়ে তিনি আওয়ামীলীগে যোগদান করেছেন।
আগামী একাদশ জাতীয় নির্বাচনে এ আসনে আওয়ামীলীগ থেকে দলে সভানেত্রী শেখ হাসিনা, জাতীয় পার্টির উপজেলা সাধারন সম্পাদক নুরে-আলম যাদু, বিএনপি জেলা সভাপতি সাইফুল ইসলাম, কমিউনিষ্ট পার্টির উপজেলা সাধারন সম্পাদক অধ্যাপক কামরুজ্জামান, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ (চরমনাই) এর মওলানা বেলাল হোসেন সহ বেশ কয়েকজন সম্ভব্য প্রার্থী মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন।
এ দিকে আওয়ামীলীগের স্থানীয় কয়েকজন কর্মী সাথে কথা বললে তারা জানান-  আমরা নির্বাচনের সব রকম প্রস্তুতি গ্রহণ করেছি,আশা করি আগামী নির্বাচনে নৌকার বিজয় হবে। তার এ আসনে  দলীয় সভানেত্রীকে এমপি হিসেবে চায়। তারা বলেন উপজেলার সর্বত্র উন্নয়নের ছোয়া লাগিয়েছেন বর্তমান সরকার। জোটগত করনে কোন ভাবে তারা এ আসনটি অন্য দলকে ছেড়ে দিতে চায় না।
এ দিকে জাতীয় পার্টির সম্ভব্য প্রার্থী নুরে-আলম যাদু বলেন- আমি দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার আশাবাদী, দলীয় প্রধান যদি আমাকে মনোনয়ন দেন তাহলে আসনটি পুনরুদ্ধার করে দলকে উপহার দিতে পারব।
আপর দিকে রংপুর জেলা বিএনপি সভাপতি সাইফুল ইসলাম বলেন- এ আসনে বিএনপি থেকে মনোনয়ন পাওয়ায় আমি শত ভাগ আশাবাদী। নেতাকর্মীদের ধরপাকড়, হাজতবাস সহ বর্তমান সরকারের বিভিন্ন সমালোচনা করে তরুন এই নেতা বলেন, বিএনপির নির্বাচনী মাঠ সাজানো আছে, এখন দরকার সুষ্ঠ ও অবাধ গ্রহণযোগ্য নির্বাচন।
রাজনৈতিক প্রতিকূলতার মধ্যেও তিনি কেন্দ্রীয় সব কর্মসূচি পালন করে আসছেন। বিএনপির দুঃসময়ের বন্ধু সাইফুল ইসলাম নেতাকর্মীদের চাঙ্গা করে তুলতে জেলা বিএনপির পাশাপাশি উপজেলা বিএনপিকেও নির্বাচনমূখী করে সাজিয়েছেন। তিনি আগামী নির্বাচনে জনগণের কাছে ধানের শীষে ভোট চান।