২২, এপ্রিল, ২০২১, বৃহস্পতিবার | | ১০ রমজান ১৪৪২

কলাপাড়ায় চাঁদার দাবীতে একজনকে কুপিয়ে গুরুতর জখম, বসতবাড়ীতে হামলা, ভাংচুর মহিলাসহ আহত – ৬

আপডেট: জুলাই ১৩, ২০১৯

কলাপাড়ায় চাঁদার দাবীতে একজনকে কুপিয়ে গুরুতর জখম, বসতবাড়ীতে হামলা, ভাংচুর মহিলাসহ আহত – ৬

রাসেল কবির মুরাদ , কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি ঃ কলাপাড়ায় চাঁদার দাবীতে বসতাড়িতে হামলা ভাংচুর করা হয়েছে। শনিবার বিকেলে উপজেলার বালিয়াতলী ইউনিয়নের লেমুপাড়া পশ্চিমকান্দা গ্রামের মিলন তালুকদারের বসতবাড়িতে চাঁদার দাবীতে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ সময়, কামাল তালুকদার(৩০), হামিদা বেগম(৩৪), সেলিনা বেগম(৬৫), মিরাজ তালুকদার (২০), ত্র্যাড. সবুজ মোল্লাকে (৪৫) পিটিয়ে আহত করে ও মিলন তালুকদারকে (৩২), কুপিয়ে জখম করেছে। স্বজনেরা আহতদের উদ্ধার করে কলাপাড়া হাসপাতালে নিয়ে আসে। গুরুতর আহত মিলন তালুকদারকে কর্তব্যরত ডাক্তার উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল হাসপাতালে প্রেরণ করে।

আহত ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আমরা অনেক আগে থেকে লেমুপাড়া আবসনে কাজ করতাম। এখন মনির হাওলাদার কাজ করতে বাধা দেয় ও চাঁদা দাবী করে। চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে মনির হাওলাদার নেতৃত্বে জসিম তালুকদার, মো. নসু তালুকদার, সাজুু তালুকদার, নাসির তালুকদার, রফিক তালুকদার, আল আমিন, সহিদ তালুকদার, বাচ্চু তালুকদার, নজির তালুকাদারসহ ২০/৩০ সন্ত্রাসী বাহিনী হকেষ্টিক, রমদা, ছেনা, দা, বগি নিয়ে বসতাড়িতে হামলা চালিয়ে আমার চাচাকে এলেপাতারি কোপাতে থাকে আমি ও আমার মা বাঁচাতে এলে আমার বৃদ্ধ মাকে পিটিয়ে আহত করে। এসময় ঘরে থাকা প্রধানমন্ত্রী, বঙ্গবন্ধুর ছবি ও মালামাল ভাংচুর করে । এরা সবাই আগে বিএনপি-জামাত করতো।এখন নব্য আওয়ামীলীগের নেতা। এ ব্যাপারে মনির হাওলাদারকে ফোন দিলে সে ফোনটি রিসিভ করেনি।

কলাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: মনিরুল ইসলাম জানান, বিষয়টি শুনে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। অভিযোগ পেলে আইনানুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।