২২, জানুয়ারী, ২০২১, শুক্রবার | | ৮ জমাদিউস সানি ১৪৪২

লটারীর মাধ্যমে ভাগ্য খুলছে ৫১২ কৃষকের

আপডেট: জুলাই ১৫, ২০১৯

লটারীর মাধ্যমে ভাগ্য খুলছে ৫১২ কৃষকের

মোঃ ইলিয়াস আলী, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় সরকারের কাছে সরাসরি ধান বিক্রির জন্য লটারির মাধ্যমে কৃষকের তালিকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

সোমবার (১৫ জুলাই) দুপুর দেড়টার দিকে উপজেলা পরিষদ হলরুমে উপজেলার ২৮ হাজার ৪১৯ জন কৃষকের মধ্য থেকে লটারির মাধ্যমে ৫১২ জন কৃষকের নামের তালিকা প্রণয়ন করা হয়। লটারির মাধ্যমে তালিকাভুক্ত ওই ৫১২ জন কৃষক সরাসরি বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার দুটি খাদ্য গুদামে ধান বিক্রি করতে পারবে।

তবে বোরো ধান সংগ্রহ অভিযানে এবারই প্রথম লটারির মাধ্যমে কৃষকের তালিকা প্রনয়ণ করা হয়েছে ঠাকুরগাঁওয়ের ৫ উপজেলায়। এর আগে সরকারিভাবে ধান ক্রয় করা হলেও তাতে লাভবান হতে পারেনি কৃষক। এ পদ্ধতিতে ধান সংগ্রহ করা হলে সরাসরি কৃষক উপকৃত হবে বলে মন্তব্য জানান উপজেলা প্রশাসন।

উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা নিখিল চন্দ্র বর্মন বলেন, ১ম ধাপে ৬৪ জন কৃষকের কাছ থেকে ৪০০ কেজি করে ধান সংগ্রহ অভিযান শেষ হয়েছে। ২য় ধাপের মাথাপিছু কৃষক ১ মেট্রিক টন ধান দিতে পারবে। উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে ৩টি করে ২৭টি ব্লকে ভাগ করা হয়েছে। সে অনুযায়ী লটারির মাধ্যমে কৃষকের তালিকা প্রণয়ন করা হয়। এই ধান সংগ্রহ অভিযান চলবে আগামী ২৫ জুলাই পর্যন্ত। এরপর ধান ক্রয় উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে।

এ বিষয়ে কৃষক রফিকুল ইসলাম আমাদের প্রতিনিধিকে বলেন, এখন কৃষকের ঘরে ধান নেই আর এখন সরকার ধান কিনছে এতে লাভবান হচ্ছে ব্যবসায়ীরা ৷ যাদের নামে লটারী উঠছে তারা ব্যবসায়ীদের কাছে লটারীটি বিক্রি করে দিচ্ছে এমনকি এমন কৃষকের নাম উঠছে সে ধান উৎপাদন করেননি,তাই তারা তাদের লটারী টি বিক্রি করে দিচ্ছে ৷ তাই তার দাবী যেন ধান মাড়াই করার সাথে সাথেই কৃষকের কাছে ধান ক্রয় করেন সরকার৷