২২, জানুয়ারী, ২০২১, শুক্রবার | | ৮ জমাদিউস সানি ১৪৪২

ইউএনও, এসিল্যান্ড ছাড়াই চলছে, ঠাকুরগাঁওয়ের দুই উপজেলা

আপডেট: জুলাই ১৮, ২০১৯

ইউএনও, এসিল্যান্ড ছাড়াই চলছে, ঠাকুরগাঁওয়ের দুই উপজেলা

মোঃ ইলিয়াস আলী, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ

দীর্ঘ এক যুগ ধরে এসিল্যান্ড নেই ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর ও বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায়। এ দুই উপজেলায় এসিল্যান্ড (সহকারী ভূমি কমিশনার) পদটির অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। গত তিন মাস ধরে দুটি উপজেলায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের (ইউএনও) পদটিও শূন্য হয়ে গেছে।

জানা যায়, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদুর রহমান মাসুদকে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ে এবং হরিপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এমজে আরিফ বেগকে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ে বদলি করা হয় গত এপ্রিল মাসের শুরুতে। বর্তমানে রাণীশংকৈল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৌসুমী আফরিদা হরিপুর উপজেলায় এবং সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

এদিকে দীর্ঘদিন ধরে দুটি উপজেলায় ইউএনও না থাকায় দাপ্তরিক কাজে বিঘ্ন সৃষ্টির পাশাপাশি বেড়েছে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন, অশ্লীল যাত্রাপালা, জুয়ার, বাল্যবিববাহসহ নানা অনিয়ম। দুটি উপজেলার চলমান কোটি টাকার প্রকল্পের কাজ চলছে হযরবল অবস্থায়। যা তদারকি করার কেউ নেই।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বালিয়াাডাঙ্গী উপজেলার প্রথম শ্রেণির একজন কর্মকর্তা আমাদের প্রতিনিধিকে জানান, বদলি হওয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রতিটি কাজের মান যাচাই করার পর বিল-ভাউচারে স্বাক্ষর করতেন। এছাড়াও স্থানীয় প্রকৌশল অধিদপ্তরের অধীনে নির্মাণাধীন রাস্তা, ব্রিজ, কালভার্টসহ অন্যান্য কাগজগুলো সরেজমিনে প্রতিনিয়ত পরিদর্শন এবং তদারকি করে আসছিলেন। অনিয়মের জন্য কয়েকজন ঠিকাদার এবং সংশ্লিষ্ট স্থানীয় প্রকৌশল অধিদপ্তরের লোকজনকে সতর্কও করেছিলেন তিনি। ওই সময়গুলোতে রাস্তা নির্মাণ কাজ, ব্রিজ নির্মাণে মানসম্মত রড সিমেন্ট ব্যবহারসহ অন্যান্য কাজগুলো সুন্দর হচ্ছিল।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ভানোর ইউনিয়নের রবিউল ইসলাম নামে এক কৃষক বলেন, ভুল চিকিৎসায় আমার ২টি গরু মৃত্যু হলে প্রতিকার চেয়ে ইউএনওর কাছে আবেদন করেছি দুই মাস হলো। অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা ইউএনও সময়ের অভাবে বিয়ষটি তদন্তের সময় পাচ্ছে না।

দুওসুও ইউনিয়নের কুশলডাঙ্গী গ্রামের স্থানীয়দের অভিযোগের ভিত্তিতে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে তীরনই নদী থেকে দুটি ড্রেজার মেশিন জব্দ করেছিলেন তৎকালীন ইউএনও। সেগুলো পুনরায় স্ব-স্ব স্থলে বালু উত্তোলন কার্যক্রম চালাচ্ছে।

সম্প্রতি বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় ভিক্ষুক মুক্ত কর্মসূচীতে যোগ দিতে আসেন রংপুর বিভাগের অতিরিক্ত কমিশনার (রাজস্ব) আবু তাহের মো. মাসুদ রানা। উপজেলায় অফিস সমূহের কর্মকর্তার পদ সমূহ ফাঁকা থাকার বিষয়টি উপজেলা চেয়ারম্যান আলী আসলাম জুয়েল মৌখিক ও লিখিতভাবে অবগত করলে দ্রুত শূন্য পদগুলোতে পদায়নের জন্য আশ্বাস প্রদান করেন।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, বড় একটি উপজেলায় দায়িত্ব আমার কাঁধে। দাপ্তরিক কাজ শেষ করে যেটুকু সময় পাচ্ছি সেটা দিয়ে যথাসাধ্য চেষ্টা করছি উপজেলার কাজগুলো দেখার। সব বিষয় তদারকির জন্য দ্রুত একজন ইউএনও’র প্রয়োজন।

ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক ড. কামরুজ্জামান সেলিম আমাদের প্রতিনিধিকে জানান, হরিপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার পদায়ন করা হয়েছে। দু’একদিনের মধ্যে যোগদান করবে। বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় নির্বাহী অফিসার পদায়নের জন্য বিষয়টি উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষকে বলা হয়েছে। আশা করছি খুব দ্রুত সেটিও পেয়ে যাবো।