৬, ডিসেম্বর, ২০১৯, শুক্রবার | | ৮ রবিউস সানি ১৪৪১

হাতীবান্ধায় উপজেলা আ'লীগের সভাপতি প্রার্থীর- সংবাদ সম্মেলন চাঁদপুরে ক্রীড়া ও সংস্কৃতির ক্ষেত্রে বিশাল ঐতিহ্য রয়েছে!শিক্ষামন্ত্রী আলহাজ্ব ডাঃ দীপু মনি এমপি বিএনপি হত্যা আর ধ্বংশের রাজনীতি করে, আওয়ামিলীগ কল্যান ও উন্নয়নের রাজনীতিতে বিশ্বাসী- হাসানাত আবদুল্লাহ তাড়াইলে পুটপাতের দোকানগুলোতে শীতবস্ত্র বেচাকনার ধুুম লেগেছে নতুন নেতৃত্বে ইবি রোভার স্কাউট গ্রুপ শ্রীপুরে বালুর স্তুপের নিচে এক শিশুর মৃত লাশ উদ্ধার ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে সাদেক কুরাইশী ও দীপক টঙ্গী সিরাজ উদ্দিন সরকার বিদ্যানিকেতন এন্ড কলেজ ২০১৯ সালের এসএসসি পরীক্ষায় ৪৮জন বৃত্তি পেয়েছে

তালতলীতে মানসিক প্রতিবন্ধীকে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগ

আপডেট: জুলাই ২৭, ২০১৯

তালতলীতে মানসিক প্রতিবন্ধীকে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগ

মো.মিজানুর রহমান নাদিম,বরগুনা প্রতিনিধি: বরগুনার তালতলীর সোনাকাটা ইউনিয়নে মঙ্গবার দিবাগত রাতে এক মানুষিক প্রতিবন্ধী কে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। স্থানীয় সুত্রে জানাযায় গত ২৩ জুলাই দিবাগত রাত ১১ টায় সোনাকাটা ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডে রাস্তার পাশে ঝোপঝাড় নিয়ে র্ধষণ চেষ্টা করে স্থানীয় নসু মিয়া । এ সময় মানুষিক প্রতিবন্ধীর চিৎকার চেচামেচি শুনে পাশে বর্তী মিরাজ বাড়ির বাইরে এসে ঝোপঝাড়ে টর্চ লাইট মারলে মানুষিক প্রতিবন্ধী মেয়েটি পাজামা ধরে বের হয়ে আশে। আর ধর্ষণ চেষ্টা কারি ব্যাক্তিটি সাদা শার্ট গায়ে দৌড়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনার ১০ মিঃ পর জিহাদ মিয়ার বাড়ির লোকজন টয়লেটের পিছনে কলাগাছের ফাকে লুকানো অবস্থায় চোর সন্দেহ নসু মিয়াকে ধরে ফেলে। এ সময় মিরাজ এসে নসু মিয়ার গায়ে সাদা শার্ট দেখলে সকল কে ধর্ষণ চেষ্টার কথা বলে। স্থানীয় জনতা ধর্ষণ চেষ্টা কারি নসু মিয়াকে গন ধোলাই দেয়। স্থানীয় ইউপি সদস্য শহিদ আকন ঘটনা স্থানে গেলে সাধারণ জনতা ধর্ষণ চেষ্টা কারি নসু মিয়াকে তার জিম্মায় রেখে দেয়। কোন বিচার না করে ইউপি সদস্য নসু মিয়াকে ছেড়ে  দিলে স্থানীয় মানুষের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা যায়। নসু মিয়াকে ছেড়ে দেওয়ার কারন জানতে চাইলে স্থানীয় ইউপি সদস্য শহিদ আকন বলেন, নসু মিয়া রাস্তা দিয়ে আসার পথে সুমন  জুয়ারি,জুয়ারি) বলে ডাক চিৎকার করেলে নসু দৌড়ে পালায় এ সময় সাধারণ জনতা তাকে গন ধোলাই দেয়, তাই নসুকে ছেড়ে দিয়েছি।

এ বিষয় অভিযুক্ত নসু মিয়ার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন রাস্তা দিয়ে আসার পথে তারা আমাকে মারধর করেছে। কেন মারধর করেছে জানতে চাইলে কোন উত্তর দিতে পারেন নি। জুয়ারি ,জুয়ারি বলে ডাক চিৎকার দিয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন না কেউ কোন ডাক চিৎকার দেয়নি শুধু শুধু আমাকে গন ধোলাই দিয়েছে। তবে আগে আমি জুয়ারী ছিলাম।

এ বিষয় তালতলী থানার ( ওসি তদন্ত) আরিফুল ইসলাম বলেন। আমরা এ বিষয় কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরও পড়ুন