২৭, নভেম্বর, ২০২০, শুক্রবার | | ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

বোরহানউদ্দিন-ঢাকা রুটে জাহিদ-৭ লঞ্চে ফাটল যেকোনো সময় ঘটতে পারে বিশাল দুর্ঘটনা

আপডেট: আগস্ট ১, ২০১৯

বোরহানউদ্দিন-ঢাকা রুটে জাহিদ-৭ লঞ্চে ফাটল যেকোনো সময় ঘটতে পারে বিশাল দুর্ঘটনা

ফারদিন নাঈম, বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধিঃ 

ঢাকা- বোরহানউদ্দিন নৌ রুঢে নানা সমস্যা নিয়ে যাত্রী পারাপার করছে এম ভি জাহিদ-৭ লঞ্চটি। লঞ্চটি একে বারে জরাজীর্ণ, পিছনের দিকে বড় ধরনের ফাটল নিয়ে শত শত যাত্রী পারাপার করে যাচ্ছে। আর কোন লঞ্চ না থাকায় অনেকটা বাধ্য হয়ে যাত্রীরাও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এ লঞ্চটিতে যাতায়াত করছে।

চলমান বৈরি আবহাওয়া এ লঞ্চটি যে কোন সময় বড় ধরনের দূর্ঘটনার আশংকা করছেন যাত্রীরা। যাত্রীরা এ রুট থেকে এ লঞ্চটি দ্রুত সরিয়ে বড় লঞ্চ দেয়ার জোরালো দাবী জানান সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে।

লঞ্চটির নাজুক অবস্থা উপজেলা প্রশাসনের নজরে আসলে উপজেলা প্রশাসন যাত্রী উঠতে দেয়নি ওই লঞ্চটিতে। এদিকে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের দৃষ্টি আর্কষণ করে এ লঞ্চটির ফাটল অংশ স্যোশাল মিডিয়ায় ব্যাপক সমালোচনা হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘ দিন যাবত নানা সমস্যা নিয়ে এমভি জাহিদ-৭ লঞ্চটিতে যাত্রী পারাপার করে যাচ্ছে। লঞ্চটির পিছনে বড় ধরনের ফাটলসহ বিভিন্ন স্থানে ফাটল রয়েছে। আর ভিতরের অবস্থা আরও নাজুক হয়ে পড়ছে।

স্থানীয় ও পৌর বাজার ব্যবসায়ীরা জানান, যাত্রী সেবায় বোরহানউদ্দিন আধুনিক মানের লঞ্চ টার্মিনাল হলেও যাত্রীসেবায় নেই বড় ধরনের লঞ্চ ব্যবস্থা। তাই আমাদের অনেককে এ লঞ্চটির নাজুক অবস্থা এবং এ রুটে ছোট লঞ্চের কারনে হাকিমুদ্দিন ও ভোলা সদর দিয়ে ঢাকায় আসা যাওয়া করতে হয়।

তারা বলেন, বোরহানউদ্দিন বাসীর সুযোগ সুবিধার কথা চিন্তা করে বড় লঞ্চের দাবি জানান।

এদিকে গত সোমবার লঞ্চটির নাজুক অবস্থা নজরে আসে উপজেলা প্রশাসনের। পরে তারা লঞ্চটি মেরামত ছাড়া যাত্রী উঠা নামা করতে নিষেধ করেন এবং বিষয়টি বিআইডিব্লিউ কে অবহিত করেন। পরে ভোলা বিআইডব্লিউটি কর্মকর্তার এসে ৭ দিনের মধ্যে লঞ্চটি মেরামত করে ফিটনেস উপযোগী করে ল চালানোর নির্দেশ দেন।

এ ঘটনাটি জানাজানি হয়ে গেলে যাত্রীরা ভয়ে কেউ ওই লঞ্চে উঠেনি। পরে বোরহানউদ্দিন ঘাট থেকে ঢাকা উদ্যেশে যাত্রী বিহীন ছেড়ে যেতে বাধ্য হয় লঞ্চটি।

এব্যাপারে বোরহানউদ্দিন পৌর ৭নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর হুমায়ুন কবির পালোয়ান বলেন, এ লঞ্চটির পিছনের অংশসহ আশ পাশে বড় ধরনের ফাটল রয়েছে।

এব্যাপারে বোরহানউদ্দিন উপজেলা নির্বাহি অফিসার খালেদা খানম রেখা জানান, লঞ্চঘাটে গিয়ে লঞ্চটির নাজুক অবস্থা দেখে বিষয়টি বিআইডব্লিউটি কে অবহিত করেছি।