৭, আগস্ট, ২০২০, শুক্রবার | | ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

ভারতসহ বিভিন্ন দেশে মুসলমানদের ওপর নির্যাতনের প্রতিবাদে সৈয়দপুরে মানববন্ধন

আপডেট: আগস্ট ৪, ২০১৯

ভারতসহ বিভিন্ন দেশে মুসলমানদের ওপর নির্যাতনের প্রতিবাদে সৈয়দপুরে মানববন্ধন


সোহেল রানা (সৈয়দপুর প্রতিনিধি) : প্রতিবেশী ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মুসলমানদের ওপর নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াত সৈয়দপুর থানা শাখা । শুক্রবার জুম্মার নামাজ শেষে সৈয়দপুর প্রেসক্লাবের সামনে ওই কর্মসুচি পালন করা হয়।কর্মসুচি উপলক্ষে নামাজের পরেই স্থানীয় আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের বিভিন্ন ওয়ার্ড শাখার নেতৃত্বে সংগঠনের সদস্যবৃন্দসহ শহরের বিভিন্ন পাড়া মহল্লা ও মসজিদ থেকে বিপুল সংখ্যক ধর্মপ্রান মুসলমান মিছিল নিয়ে ওই মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে অংশ নেয়।

এতে সভাপতিত্ব করেন আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত সৈয়দপুর থানা শাখার সভাপতি মো. শফি রেজা। ভারতে জয় শ্রীরাম না বলায় তাবরেজ আনসারী নামের মুসলমান যুবককে পিটিয়ে হত্যার তীব্র নিন্দা জানিয়ে দুই ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে প্রতিবাদসভায় বক্তব্য বলেন সৈয়দপুর পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মোজাম্মেল হক, আওয়ামীলীগ নেতা ইলিয়াস আলী, নীলফামারী জেলা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের সাধারণ সম্পাদক মো. গুলজার আশরাফী, সংগঠনের অন্যতম নেতা হাজি মো. তাসলিম আশরাফী, হাজী আজহার সুলতান, মেরাজ রসুল, চিনি মসজিদের ইমাম মাওলানা শাহিদ রেজা রেজভি, সৈয়দপুর প্লাজা সুপার মার্কেট জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা মঈনুল ইসলাম আল কাদেরী, গাউসিয়া মসজিদের খতিব রিদওয়ান আল কাদেরী, আয়োজক সংগঠনের থানা শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আসিফ আশরাফি, সাংগঠনিক সম্পাদক ফিরোজ আলম, তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক খুরশিদ আলম রেজভী, হায়দার আলী এমাদী, আনোয়ার রেজা আশরাফী, রায়হান আশরাফী আশরাফী প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা ভারতে বিভিন্ন কারণে মুসলমান হত্যা ও তাদের ওপর নির্যাতন করায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান । তারা বলেন বাংলাদেশে সংখ্যালঘু বলতে কেউ নেই। মুসলিম হিন্দু খ্রিস্টান বৌদ্ধসহ সকলের সমান অধিকার রয়েছে। অথচ ভারত, মিয়ানমারসহ বিভিন্ন দেশে ব্যাপকহারে মুসলমানদের ওপর অত্যচার করা হলেও বিশ্ববাসী নীরব। বক্তারা মুসলমানদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ও নির্যাতন বন্ধের দাবি জানিয়ে ভারতীয়সহ অন্যান্যদের উদ্দেশ্যে বলেন দেশের সংখ্যালঘু জনগনকে ভালবাসা দেয়াসহ কেমন করে তাদের জানমালের নিরাপত্তা দিতে হয় তা আমাদের বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে শিখুন। বক্তারা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে সম্প্রীতির বন্ধনে আবদ্ধ করে সকলকে নিরাপত্তা দিচ্ছেন বলেই বাংলাদেশে জাতীগত দ্বন্দ সংঘাত নেই। সকলে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে আত্মীয়তার বন্ধনে বসবাস করছে। যা সারা বিশ্বে উদাহরণ হতে পারে। বক্তারা মুসলমানদের ওপর নির্যাতনের বিষয়টি জাতিসংঘে উপস্থাপন করার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আহবান জানান। মানববন্ধন চলাকালে বক্তারা বর্তমান ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের পক্ষ থেকে শহর পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা রাখাসহ গুজব প্রতিরোধে সকল সদস্যকে একসাথে কাজ করার আহবান জানান। মানবন্ধন শেষে দেশ ও জাতির কল্যাণে মোনাজাত করা হয়।