২৩, অক্টোবর, ২০১৯, বুধবার | | ২৩ সফর ১৪৪১

আমতলীতে ধর্ষককে গ্রেফতারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন ধর্ষীতার পরিবারকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানীর অভিযোগ

আপডেট: আগস্ট ৪, ২০১৯

আমতলীতে  ধর্ষককে গ্রেফতারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন ধর্ষীতার পরিবারকে মিথ্যা মামলা   দিয়ে হয়রানীর অভিযোগ

আমতলী (বরগুনা)প্রতিনিধি:

বরগুনার আমতলী উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের পশ্চিম চিলা গ্রামে ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে পড়–য়া শিশু (১৩) ছাত্রীকে ধর্ষণ কারী শামিম সরদার (৪৫)কে গ্রেফতার করার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করেছে ধর্ষীতার বাবা মো. সাইদু রহমান হান্নান। রবিবার সকাল দশটায় আমতলী প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ধর্ষীতার পিতা সাইদুর রহমান হান্নান বলেন , তার মেয়ে পশ্চিম চিলা আমিনিয়া সিনিয়ার ফাজিল মাদ্রাসার ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী ১৩ জুন বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ীতে একা অবস্থান করে। এ সময় সে দিন মজুরের কাজ করতে আমতলী উপজেলা সদরে যায় । এ সুযোগে শামীম সরদার তার মেয়েকে ধর্ষন করেন। এ ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে ১৪ জুন আমতলী থানায় মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং ০৯-১৪/৬/২০১৯ইং।

মামলা দায়ের করার পর আমতলী থানার এস আই নাসরিন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা নিযুক্ত হন । থানা পুলিশ অধ্যবদি পর্যন্ত আসামীকে গ্রেফতার করতে পারেনী। ধর্ষক শামীম পলাতক থেকে তার স্ত্রী নিলুফা বেগমকে বাদী বানিয়ে ধর্ষীতার পিতা সাইদুর রহমান হান্নান ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে আমতলী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে সি আর -৫৪৪/১৯ একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করান। বিজ্ঞ আদালত মামলাটি খারিজ করে দেন। এরপর পুনরায় বরগুনা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে আরেকটি মামলা দায়ের করেন। যার নং এমপি মামলা নং ৪৪৭/১৯।

এখানেই তারা ক্ষান্ত হয়নি। ধর্ষকের ভাই বাবুল সরদার, মিজানুর সরদার, মো. নিজাম সরদারসহ ধর্ষীতার আত্মীয় স্বজনরা ধর্ষীতার বাড়ী গিয়ে মামলা প্রত্যাহারের হুমকি দিচ্ছে । মামলা প্রত্যাহার না করলে ধর্ষীতার পিতাসহ পরিবারের সদস্যদের মারধোর বাড়ী ঘর পুড়িয়ে হুমকি দিয়েছেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই নাসরিন মুঠোফোনে জানান, ধর্ষককে গ্রেফতারের চেষ্ঠা অব্যাহত আছে। আমতলী থানার ওসি আবুল বাশার জানান, জানান ধর্ষককে গ্রেফতারের জোর চেষ্টা চলছে। ধর্ষীতার পরিবার ধর্ষক ও হুমকি দাতাদের দ্রæত গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্ত মূলক বিচারের জন্য প্রশাসনের উচ্চমহলের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছি। এসময় সংবাদ সম্মেলনে ধর্ষীতার পিতার সাথে স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুস সালাম লিটন মোল্লা উপস্থি ছিলেন।