৩, জুন, ২০২০, বুধবার | | ১১ শাওয়াল ১৪৪১

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

আপডেট: আগস্ট ১০, ২০১৯

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

বিশেষ প্রতিনিধি মোঃঅাতিকুর রহমানঃ ৮ আগস্ট ২০১৯বরিশালের কয়েকটি আঞ্চলিক পত্রিকাসহ বেশ কয়েকটি অনলাইন পোর্টালে প্রকাশিত বাবুগঞ্জে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে গনধোলায়ের শীকার তিন প্রতারক’ শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদটির তীব্র প্রতিবাদ  করেছেন বাবুগঞ্জের সাংবাদিক দৈনিক ভোরের কাগজের বাবুগঞ্জ প্রতিনিধি ও বিমানবন্দর প্রেসক্লাবের সম্পাদক রোকনুজ্জামান সোহাগ, কলমের কন্ঠের বাবুগঞ্জ প্রতিনিধি সাংবাদিক রেজাউল করিম রেজা।তাছারা রোকনুজ্জামান সোহাগ বলেন আমাকে হিজবুত তাওহীদের একজন সক্রিয় সদস্য বলা হয়েছে সম্পূর্ন মিথ্যা বানোয়াট।আমি তীব্র নিন্দা জানাই।

তারা প্রতিবাদপত্রে উল্লেখ করেন,  বাবুগঞ্জের বিমানবন্দর মোড়ে বাইতি দুলালের বাড়িতে পরকীয়ায় জড়িত সন্দেহে মধ্যবয়স্ক মোনাছেফ হাওলাদার ওরফে মোড়ল নামের এক ব্যক্তিকে এলাকাবাসী মিলে ঘরের ভিতর আটকিয়ে রাখে। সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল ছুটে যান বাবুগঞ্জের কিছু সংবাদকর্মী এবং এয়ারপোর্ট থানার এস আই মনির হোসেন। ঘটনার বিবরণ শুনে ঘটনার সত্যতা না পেয়ে মোনাছেফ হাওলাদারকে গ্রেফতার করা হয়নি। এবং এলাকাবাসী সংবাদকর্মী ও এয়ারপোর্ট থানার এসআই সবাই মিলে ঘটনার সুরাহা করে দেন। 

তারা আরো উল্লেখ করেন,  কিছু অসাধু চক্র সংবাদ কর্মী রোকনুজ্জামান সোহাগ, রেজাউল করিম রেজা ও সুমন তাদের সুনামের ঈর্ষানীত হয়ে তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ ছাপা হয়। যা আদৌ সত্য নয়।
এ প্রসঙ্গে বিমানবন্দর প্রেসক্লাবের সভাপতি আরিফ আহমেদ মুন্নার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন- ঘটনাটি সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন, মিথ্যা বানোয়াট। বিমানবন্দর প্রেসক্লাবের সুনামে ঈর্ষানীত হয়ে কিছু অসাধু সংবাদকর্মী এ ঘটনা ঘটিয়েছে। তাছাড়া আমাকে না জানিয়ে কিংবা আমার কোনো বক্তব্য না নিয়ে উল্টা আমার বরাত দিয়ে ওই কথিত সংবাদে বানোয়াট বক্তব্য প্রচার করা বড় ধরনের ষড়যন্ত্র এবং নিন্দনীয় অপরাধ। তাই আমি উক্ত চক্রান্তমূলক ও মানহানিকর সংবাদের তীব্র নিন্দা ও জোর প্রতিবাদ জানাচ্ছি।