৩, মার্চ, ২০২১, বুধবার | | ১৯ রজব ১৪৪২

তালতলীতে আশ্রয়ন প্রকল্পের নানা সমস্যায় জর্জরিত,মানবতার জীবন যাপন!

আপডেট: আগস্ট ২১, ২০১৯

তালতলীতে আশ্রয়ন প্রকল্পের নানা সমস্যায় জর্জরিত,মানবতার জীবন যাপন!

মো.মিজানুর রহমান নাদিম,বরগুনা প্রতিনিধি :বরগুনা তালতলী উপজেলার ছোটভাইজোরা গ্রামে অবস্থিত মালিপাড়া আশ্রয়ন প্রকল্পের মানুষের নানা সমস্যায় জর্জরিত এবং মানবতার জীবন যাপন করছে।মানুষের মৌলিক চাহিদা মধ্যে শুধুমাত্র বাসস্থানের ব্যবস্হা রয়েছে বাসিন্দাদের জন্য।আশ্রয়ন প্রকল্পটি সংস্কার না করায় টিন ফুটো ও মরিচা ধরে খসে পড়ছে।
সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে,”আশ্রয়নের অধিকার শেখ হাসিনার উপহার” এমন  স্লোগানকে সামনে রেখে সরকারি উদ্দোগে উপজেলার ছোটভাইজোরা গ্রামের মালিপাড়া  আশ্রয়ন প্রকল্পটি গড়ে ওঠে।২০০১ সালে  এই প্রকল্পটি উঠানো হয় সেই থেকে  ৪টি ব্রাকে ৪০টি ঘরে ৪০টি পরিবার বসবাস শুরু করে।দীর্ঘ ১৭-১৮ বছরের মধ্য ১বার সংস্কার হয় দ্বিতীয় কোনে সংস্কার না করায়  টিন ফুটো ও মরিচা ধরে খসে পড়ছে। চালের উপর পলেথিন, ইট, কাঠ, মাটি দিয়ে কোনো রকম বৃষ্টির পানি থামানোর চেষ্টা করেও ব্যর্থ হচ্ছে বাসিন্দারা। ফলে কোনো কোনো বাসিন্দা আশ্রয়ন ছেড়ে চলে গেছেন অন্যত্র।
একাধিক ভুক্তভোগীরা জানান,প্রকল্পের ইউনিট গুলো বসবাসের উপযোগী না।বৃষ্টি হলেই ঘরে পানি পড়ে। ঝড়ে খসে পড়ছে চালের পচা কাঠও। আহত হয়েছেন অনেকেই। দিনে-রাতে যখনই বৃষ্টি ও ঝড় হচ্ছে, তখনই বিছানাপত্র গোছ-গাছ করে বসে থাকতে হয়।এছাড়া নিত্যপ্রয়োজনীয় পানি সংকট, ভাঙ্গাচুরা নাজুক স্যানিটেশন ব্যবস্থা, বেহাল যোগাযোগ ব্যবস্থা ।আমাদের আশ্রয়নে বিদু্ৎতের খুটি এনে রেখেছে কিন্তু এখন পর্যন্ত আমাদের লাইন দেয় নি আমরা অন্ধকারে বসবাস করতেছি। এসব সমস্যার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তাব্যক্তিদের কাছে বার বার ধরনা দিলেও মেলছে না কোনো সমাধান। তাদের দাবি, অতি দ্রুত আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘরগুলো সংস্কারসহ সকল সমস্যা সমাধানের মাধ্যমে বসবাসের উপযোগী করে তোলা।
ইউপি সদ্যস খালেক মাসুদ বলেন,আমার কাছে যে বরাদ্ধ আছে তা দিয়ে আশ্রয়ন প্রকল্পটি উন্নয়ন করা সম্ভব না।এর পর যত সম্ভব আমি রাস্তাঘাট ঘর মেরামত এবং বিদু্ৎতের জন্য চেষ্টা করেছি। আমি উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরকে অবগত করেছি।
উপজেলা সমাজসেবা অফিসার জনাব মো.শফিকুল আলম বলেন,আমাদের মালিপাড়া আশ্রয়ন প্রকল্পের ফাইল রয়েছে আমতলী উপজেলা পরিষদে।আমাদের কাছে এখনও হস্তান্তর করেনি তবে আমি দ্রুত আনার ব্যাবস্হা করতেছি।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার  জনাব দীপায়ন দাস শুভ মুঠোফোনে বলেন, আশ্রয়ন প্রকল্পটির সমস্যা গুলা চিহ্নিত করে আসতে বলেন আমরা সংশ্লিষ্ট দফতরকে অবগত করে ব্যবস্থা নিব।