১৭, নভেম্বর, ২০১৯, রোববার | | ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

চাঁদপুরে হাতপাখার প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র বাঁচাইয়ে উত্তীর্ণ ৫ প্রার্থী

আপডেট: ডিসেম্বর ২, ২০১৮

চাঁদপুরে হাতপাখার প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র বাঁচাইয়ে উত্তীর্ণ ৫ প্রার্থী
জি. এম শরীফ মাছুম বিল্লাহ হাইমচর প্রতিনিধি, চাঁদপুরঃ সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও দুর্নীতিমুক্ত সমাজ গঠনের অঙ্গীকার নিয়ে ৫টি আসনেই সর্বাত্মক লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিয়ে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর আমীর পীর সাহেব চরমোনাই মনোনীত চাঁদপুরের ৫টি আসনের প্রার্থীরা। আজ চুড়ান্ত বাছাইয়ে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর ৫ আসনের সকলের মনোনয়ন পত্র বৈধতা পেয়েছে।
চাঁদপুর জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান সহ  রিটার্নিং কর্মকর্তারা ২ ডিসেম্বর রবিবার যাচাই-বাছাইয়ের পর এ বৈধ ঘোষণা দেন।
চাঁদপুরের ৫টি সংসদীয় আসনের ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত হাতপাখার যেই বৈধ প্রার্থীদের নাম ঘোষণা দেন তারা হলোঃ
চাঁদপুর-১(কচুুুয়া) মাওলানা যোবায়ের আহমাদ পাটওয়ারী।
চাঁদপুর-২(মতলব উওর-দক্ষিণ) পীরজাদা  মাওলানা আফসার উদ্দিন।
চাঁদপুর-৩(সদর- হাইমচর) শেখ মোঃ জয়নাল আবদিন।
চাঁদপুর-৪(ফরিদগঞ্জ) শাইখুল হাদিস আল্লামা মকবুল হোসাইন এবং
চাঁদপুুর-৫(হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি) হাফেজ মুহাম্মদ শাহাদাত হোসাইন প্রধানীয়া।
প্রার্থীদের মনোনয়ন বৈধতার চুড়ান্তভাবে খবর পাওয়ার পর চাঁদপুর ৪ আসনের সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় প্রশিক্ষন সম্পাদক আলহাজ্জ্ব মাওলানা মোঃ মকবুল হোসাইন বলেন এখন মূল কাজ হলো দ্বীনের দায়ী হিসেবে প্রত্যেক ভোটারের কাছে হাতপাখার লিফলেটে দ্বীনের দাওয়াত পৌঁছে দেওয়া
তিনি আরো বলেন- ৫টি সংসদীয় আসনের প্রত্যেক নাগরিকের কাছে ইসলামের সুমহান আদর্শের দওয়াত পৌঁছে দেয়াই হোক আমাদের একমাত্র কর্মসূচি।
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত  চাঁদপুর ৩ আসনের সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর চাঁদপুর জেলা সেক্রেটারি মাওলানা শেখ মোঃ জয়নাল আবেদীন বলেন- আমরা আমাদের কাজটুকু যথাযথ পালন করতে পারলে ইনশাআল্লাহ ৩০ ডিসেম্বর জনগণ তাদের সঠিক রায় দিতে ভুল করবে না।
তিনি আরো বলেন-  আমরা আশাবাদী পরীক্ষিত দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ব্যালটের মাধ্যমে গণমানুষ তাদের রায় দেবে। তাদের ন্যায্য অধিকার ফিরে পেতে হাতপাখায় তাদের সমর্থন দিবে।
৫ টি আসনের সকল প্রার্থী এ মর্মে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ যে ক্ষুধা, দারিদ্র্যতা আর বেকারত্বের অভিশাপ থেকে প্রিয় মাতৃভূমিকে মুক্ত করা হবে। মানুষের আশা আকাঙ্খার প্রতিফলন দেখতে এবং দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে হাতপাখার ভোটবিপ্লব হবে সবখানে ইনশাআল্লাহ।