৫, জুলাই, ২০২০, রোববার | | ১৪ জ্বিলকদ ১৪৪১

মতলবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্ট এর ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯

মতলবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ  ফুটবল টুর্ণামেন্ট এর ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত


ফয়েজ আহাম্মেদ, বিশেষ প্রতিনিধি ::   

মতলব উত্তর উপজেলায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট বালক (অনুর্ধ্ব-১৭) এর ফাইনাল খেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট মোঃ নুরুল আমিন রুহুল।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, খেলাধুলা যুব সমাজকে মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ থেকে দূরে রাখে। যুব সমাজকে যদি ক্রীড়ার সঙ্গে সম্পৃক্ত করা যায় , তাহলে সহজেই দেশ থেকে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নির্মূল করা সহজ হবে।জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার ক্রীড়াঙ্গনের উন্নয়নের ক্ষেত্রে ব্যাপক কাজ করছে। দেশের প্রতিটি উপজেলায় আওয়ামী লীগ সরকার মিনি স্টেডিয়াম তৈরীর প্রকল্প গ্রহণ করেছে।

শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) মতলব উত্তর উপজেলা শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে (প্রস্তাবিত) উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারের সভাপতিত্বে এবং উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক একে আজাদ এর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস।
অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) শুভাশিস ঘোষ, মতলব উত্তর থানার অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শহিদুল্লাহ প্রধান।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব আলী গাজী, উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক জিএম ফারুক, ছেংগারচর পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি হাসান কাইয়ুম চৌধুরী, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি দেওয়ান জহির, সাধারণ সম্পাদক কাজী শরীফ, উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, জেলা যুবলীগ নেতা গাজী সাখাওয়াত হোসেন, ষাটনল ইউপি’র চেয়ারম্যান একেএম শরিফউল্ল্যাহ সরকার, উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা গাজী মুক্তার হোসেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট মহসিন মিয়া মানিক, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আল-মাহমুদ টিটু মোল্লা, গজরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওয়াহেদুজ্জামান ওয়াদুদ সরকারসহ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রনী-পেশার লোকজন।

ফাইনাল খেলায় ষাটনল  ইউনিয়ন ২-০ গোলের ব্যাবধানে এখলাসপুর ইউনিয়নকে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ান হবার গৌরব অর্জন করে। খেলায় রেফারির দায়িত্ব পালন করেন সালাউদ্দিন সরকার। সহকারী রেফারি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন জামাল উদ্দিন এবং আব্দুর রহিম এবং খেলার ধারাবিবরণীতে ছিলেন সাংবাদিক কামরুজ্জামান হারুন ও লোকমান সরকার।