২৩, অক্টোবর, ২০১৯, বুধবার | | ২৩ সফর ১৪৪১

আবরার হত্যা! প্রতিবাদে উত্তাল জবি

আপডেট: অক্টোবর ৯, ২০১৯

আবরার হত্যা! প্রতিবাদে উত্তাল জবি

জবি প্রতিনিধিঃ

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদ ও জড়িতদের বিচারের দাবিতে দফায় দফায় বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

এ নিয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় রঙ্গভূমি নামে একটি সংগঠন ক্যাম্পাসে পথনাট্য প্রদর্শন করে। এদিকে ক্যাম্পাসে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিলে ছাত্রলীগ কর্মীদের সাথে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারে পূর্বঘোষিত কর্মসূচীর অংশ হিসেবে শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ‘আমরা আজকে শুধু আবরার হত্যাকাণ্ডের বিচার চাইতে আসিনি। গত ১৯ বছরে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে যত হত্যাকাণ্ড হয়েছে আমরা কোনটিরই পূর্নাঙ্গ বিচার পাইনি। প্রতিবারই আমরা রাস্তায় নেমেছি কিন্তু তারা ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে আইনের ফাঁকফোকর দিয়ে বেরিয়ে গেছে’।

মানববন্ধন শেষে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল বের করে। বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের স্লোগানে উত্তাল হয়ে উঠে জবি ক্যাম্পাস ও আশপাশের এলাকা।

এরপর বেলা সাড়ে ১১টায় নটরডেমিয়ান সোসাইটি অব জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে মানববন্ধন করে। এসময় তারা নটরডেম কলেজের সাবেক শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িতদের বিচার দাবি করেন। মানববন্ধনে আবরার হত্যার প্রতিবাদে বিভিন্ন প্লে-কার্ড হাতে শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে।

এর আগে সকাল ৯টায় বিক্ষোভ মিছিল করে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। মিছিলের একপর্যায়ে তাদের ধাওয়া করে শাখা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। এসময় অন্তত ৫ জন আহত হয়েছেন বলে জানা যায়।

বেলা ১২টায় ক্যাম্পাসে মানববন্ধন করেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি।শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. নুর মোহাম্মদের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপাচার্য ড. মীজানুর রহমান। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে যদি কোন শিক্ষার্থী অপর শিক্ষার্থীকে থাপ্পড়ও দেয়, অভিযোগ দিলে আমরা ব্যবস্থা নেবো। আজকের ঘটনা নিয়েও যদি কেউ অভিযোগ দেয়, তদন্ত সাপেক্ষে আমরা এর বিচার করব’।

এরপর বেলা ১টায় আবরার হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও পথনাট্য ‘অবয়ব’ প্রদর্শন করে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় রঙ্গভূমি।

পরে সন্ধ্যা ৭ টায় একযোগে দেশের সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে মোমবাতি প্রজ্বলনের অংশ হিসেবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে মোমবাতি প্রজ্বলন করে শিক্ষার্থীরা৷