২৭, নভেম্বর, ২০২০, শুক্রবার | | ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

পটুয়াখালী গলাচিপা উপজেলায় কৃষিঅফিসে ৫১টি পদের মধ্যেঅর্ধেক পদ খালি

আপডেট: অক্টোবর ১০, ২০১৯

পটুয়াখালী গলাচিপা উপজেলায় কৃষিঅফিসে ৫১টি পদের মধ্যেঅর্ধেক পদ খালি

পটুয়াখালী গলাচিপা উপজেলায় দীর্ঘদিন ধরে কৃষিঅফিসের অর্ধেক পদ খালি রয়েছে। ৫১টিপদের বিপরীতে কর্মরত আছে মাত্র ২৬জন। অতি দ্রুত পদ গুলো পূরণ করা না হলে মাঠপর্যায়ের কৃষকরা সঠিক পরামর্শ হতে বঞ্চিতহচ্ছে। এতে করে উৎপাদনও কমে যাচ্ছে।সূত্র জানায়, গলাচিপা উপজেলায় ১২টি ইউনিয়ন ও১টি পৌরসভা রয়েছে। উপজেলাটি ৩৭টি ব্লকেভাগ করে ৩৭জন উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তাথাকার কথা রয়েছে। কিন্তু এর বিপরীতেকর্মরত রয়েছে মাত্র ১৭জন উপসহকারী কৃষিকর্মকর্তা। এত কম জনবল দিয়ে কৃষি উন্নয়নসম্ভব না। জানা গেছে, গলাচিপা সদর থেকেবিচ্ছিন্ন দুইটি ইউনিয়ন রয়েছে, যা সদর থেকেপ্রায় ২০কিলোমিটার দূরে। এখানে উপসহকারীকৃষি কর্মকর্তা মো: সাইদুর রহমান দুইটিইউনিয়নের চর শিবা, কপাল বেড়া, উত্তর চরবিশ্বাস, দক্ষিন চরবিশ্বাস ও চর আগস্তি মোট ৫টিব্লকে কৃষকের পরামর্শ দিয়ে আসছে। যাএকার পক্ষের কোনদিন সম্ভব নয় বলেজানালেন উত্তর চর বিশ্বাস এলাকার কৃষক বাকেরবিশ্বাস। তিনটি করে ব্লকের দায়িত্ব রয়েছেউপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো নাহিদ হাসান,আবুল বাসার,হুমায়ূন কবির, জহিরুল ইসলাম সোহাগ,মো: দেলোয়ার হোসেন ও মো:বেলায়েত হোসেন।খালি পদ গুলো হল: বিসিএস ক্যাডার কর্মকর্তাঅতিরিক্ত কৃষি অফিসার এক জন, কৃষি সম্প্রসারনঅফিসারের ২টি পদের মধ্যে ১টি পদ খালিরয়েছে। উপজেলায় উপ সহকারী কৃষিকর্মকর্তা ৩৭টি পদের মধ্যে ২০টি পদ খালিরয়েছে। উচ্চমান সহকারী তথ্য হিসাব রক্ষক১টি, অফিস সহকারী তথা কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক ১টিপদ, নিরাপত্তা প্রহরী ১টি পদ ও মোকাদ্দম ১টিপদ খালি রয়েছে। সর্ব মোট মিলিয়ে ২৫টি পদখালি রয়েছে।এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি অফিসার এ আর এমসাইফুল্লাহ বলেন, প্রতি মাসেই শুন্য পদেরতালিকা উর্ধ্বত্বন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানোহয়। এসব শূন্য পদের জন্য শীঘ্রই লিখিতপরীক্ষার মাধ্যমে জনবল নিয়োগ করা হবে।