১৫, ডিসেম্বর, ২০১৯, রোববার | | ১৭ রবিউস সানি ১৪৪১

টাঙ্গাইলে ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ ও শিশুকন্যাকে কুপিয়ে হত্যা

আপডেট: অক্টোবর ১৩, ২০১৯

টাঙ্গাইলে ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ ও শিশুকন্যাকে কুপিয়ে হত্যা

কালিহাতী(টাঙ্গাইল)প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের ভাল্লুককান্দী এলাকায় ৭মাসের অন্তঃসত্তা গৃহবধূ লাকী বেগম(২২) ও তার চার বছরের শিশুকন্যা আলিফাকে কুপিয়ে ও জবাই করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার দিবাগত গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে। লোমহর্ষক এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। নিহতরা ওই এলাকার আলামিনের স্ত্রী ও কন্যা।
স্থানীয় পারভেজ ও শিপনসহ অনেকেই জানান, নিহত গৃহবধূ লাকীর স্বামী আলামিন এলাকার আসাদ মার্কেটে মোবাইল ফোন-ফ্যাক্সের দোকান করেন। ব্যবসার কারণে প্রায়ই তিনি মধ্যরাতে বাড়িতে ফিরতেন। নির্জনতার সুযোগে দুর্বৃত্তরা আলামিনের স্ত্রী ও কন্যাকে হত্যার পর তার ঘরে লুটপাট চালিয়ে নগদ ৮লাখ টাকা নিয়ে যায়। নিহত শিশু আলিফা কচুয়াডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী।


নিহত লাকীর স্বামী আলামিন জানান, শনিবার দিবাগত রাত প্রায় সাড়ে ১২টার দিকে বাড়িতে গিয়ে দেখেন গেটটি খোলা। এ সময় তিনি বাড়ির ভিতরে ঢুকতেই প্রথমে রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুকন্যা আলিফাকে মাটিতে পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার দেন। চিকৎকারে প্রতিবেশীরা ঘটনাস্থলে এসে বাড়ির উঠানে রক্তাক্ত অবস্থায় তার স্ত্রী লাকীকেও পড়ে থাকতে দেখেন। পরে তারা মাটিতে পড়ে থাকা স্ত্রী-কন্যার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে পুলিশে খবর দেয়।
এ প্রসঙ্গে টাঙ্গাইল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মীর মোশাররফ হোসেন জানান, শনিবার দিবাগত রাত ১২.০৫ মিনিটের দিকে কে বা কারা আলামিনের বাড়িতে ঢুকে স্ত্রী-কন্যাকে কুপিয়ে ও জবাই করে হত্যা করে। এ ঘটনায় এখনো কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। মা ও শিশুর মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা করার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান ওসি।