১৬, সেপ্টেম্বর, ২০১৯, সোমবার | | ১৬ মুহররম ১৪৪১

কলাপাড়ায় বিকল্প জীবিকায়ন সৃষ্টিতে উপকরণ বিতরণ

আপডেট: ডিসেম্বর ৬, ২০১৮

কলাপাড়ায় বিকল্প জীবিকায়ন সৃষ্টিতে উপকরণ বিতরণ
পটুয়াখালী প্রতিনিধি মো:সাইফুল ইসলাম :  বিকল্প জীবিকায়ন সৃষ্টির লক্ষ্যে পটুয়াখালীর কলাপাড়ার উপকূলীয় এলাকার সুবিধা বঞ্চিত ও প্রতিবন্ধী ৬১ জন নারী-পুরুষের মাঝে বিভিন্ন উপকরণ বিতরণ করা হয়েছে। প্রশিক্ষণ শেষে সুবিধা বঞ্চিত এসব নারী-পুরুষের উপকরণ বিতরণ করেছে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা ওয়ার্ল্ড কনসার্ন বাংলাদেশ। কলাপাড়া উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে বৃহস্পতিবার বেলা এগারটায় এসব উপকরণ করা হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহি অফিসার মো, তানভীর রহমানের সভাপতিত্বে এসময় প্রধান অতিধি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কলাপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল মোতালেব তালুকদার। ওয়ার্ল্ড কনসার্ন বাংলাদেশ’র প্রোগ্রাম অফিসার রাজিব বিশ্বসের সভাপতিত্বে এসময় বক্তব্য রাখেন ওয়ার্ল্ড কনসার্ন বাংলাদেশ’র প্রকল্প ব্যবস্থাপক সিলভেস্টার মাইকেল মধু। এসময় সংস্থার সকল কর্মকর্তা ছাড়াও জনপ্রতিনিধি, গনমাধ্যমকর্মী এবং বিভিন্ন এনজিও প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
দুর্যোগ ঝুকিতে বসবাসকারী কলাপাড়ার উপকূলীয় এলাকা লালুয়া, বালিয়াতলী, মিঠাগঞ্জ, ডাবলুগঞ্জ, মহিপুর ও লতাচাপলী ইউনিয়নের ৩০জন নারীকে সেলাই মেশিন, ১২ জনকে রিক্সা ভ্যান, ১৯ জনকে ক্ষুদ্র ব্যবসার উপকরন সংস্থার বিকল্প জীবিকায়নের মাধ্যমে দুর্যোগ ঝুঁকি হ্রাস প্রকল্পের আওতায় বিতরণ করা হয়েছে।
ওয়ার্ল্ড কনসার্ন বাংলাদেশের ডারালা প্রকল্পের ব্যবস্থাপক মাইকেল মধু বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে এ এলাকার মাননুষের পেশার পরিবর্তন হচ্ছে। পরবর্তিত অবস্থার সাথে খাপ খাওয়ানো ও বিকল্প জীবিকায়নের মাধ্যমে অর্থনৈতিকভাবে সামলম্বী করে গড়ে তোলার জন্য এসব উপকরণ বিতরণ করা হয়েছে।
উপজেলার বালিয়াতলী ইউনিয়নের মধুপাড়া গ্রামের প্রতিবন্ধী মনির জানায়, দুর্যোগে সব কিছু হারিয়ে জীবিকার তাগিদে রাজধানী ঢাকায় গিয়ে ভিক্ষা করেছি। যখন বুঝতে পারলাম ভিক্ষা কোন পেশা নয় তখন বাড়ী চলে আসি। নিজ উদ্যোগে কিছু করার শত ইচ্ছা থাকলেও অর্থ ছিল বড় বাঁধা। শারিরীক প্রতিবন্ধীতার জন্য কোন কাজ করতে পারছিলাম না। ওয়ার্ল্ড কনসার্ন বাংলাদেশের সহযোগিতায় জীবন যাত্রায় পরিবর্তন আনতে পারবেন এমন প্রত্যাশা তার।
সভাপতির বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহি অফিসার তানভীল রহমান বলেন, যে সব উপকরণ বিতরণ করা হয়েছে তা নিজেদের জীবন মান উন্নয়নে ব্যবহার করবেন