২০, অক্টোবর, ২০২০, মঙ্গলবার | | ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে জার্মানির মিউনিখে আ.লীগের দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

আপডেট: নভেম্বর ৪, ২০১৯

জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে জার্মানির মিউনিখে আ.লীগের দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

প্রবাসী ডেস্কঃ

গভীর শোক ও শ্রদ্ধায় জার্মানির বায়ার্ন রাজ্যের রাজধানী মিউনিখে পালিত হয়েছে জেলহত্যা দিবস। এ উপলক্ষে রবিবার সন্ধ্যায় শহরের কেন্দ্রস্থলে সারোবার রেস্টুরেন্টে জার্মান আওয়ামী লীগের সমন্বয় কমিটির তত্বাবধানে এবং বায়ার্ন মিউনিখ আওয়ামী লীগের উদ্যোগে দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভার আয়ােজন করা হয়।

জার্মান আওয়ামীলীগ সমন্বয় কমিটির অন্যতম সদস্য ও বায়ার্ন মিউনিখ আওয়ামী লীগের সভাপতি রোমান মিয়ার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জার্মান আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা ও সমন্বয় কমিটির সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুম মিয়া।

জার্মান আওয়ামী লীগের সমন্বয় কমিটির সদস্য সেলিম ভূঁইয়ার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বায়ার্ন মিউনিখ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম ও প্রচার সম্পাদক আলী মর্তুজা পারভেজ।

এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন প্রবীণ আওয়ামীলীগ নেতা ডক্টর হাসনাইন গাজী ও সাফিন আহমেদ।

সভার শুরুতেই শুরুতে বঙ্গবন্ধুসহ জাতীয় চার নেতার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট দাঁড়িয়ে নীরবতা পালন এবং রুহের মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। শুরুতে পবিত্র কোরান তেলাওয়াত করেন নেসার আহমেদ মুন্না । দোয়া ও মুনাজাত পরিচালনা করেন সোলায়মান আহসান।
আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যা এবং জেলহত্যা বিচ্ছিন্ন কোন ঘটনা নয়, বরং পরস্পর সম্পর্কযুক্ত। এই পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ডসমূহের মধ্য দিয়ে খুনি মোশতাক-জিয়া চক্র বাংলাদেশকে পাকিস্তানি ধারায় ফিরিয়ে নেওয়ার, মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত স্বাধীনতাকে ব্যর্থ করার অপচেষ্টা করেছিল।সময়ের পরিক্রমায় আজ সত্য প্রকাশিত, ইতিহাসের আস্তাকুঁড়ে ঘাতক মোশতাক-জিয়া নিক্ষিপ্ত।’

তারা বলেন, জাতীয় চার নেতা জেলখানায় জীবন দিয়ে দেশ, দল ও নেতৃত্বের প্রতি তাদের আনুগত্যের প্রমাণ দেন।

বক্তারা জেলহত্যা মামলার সাজাপ্রাপ্ত বাকি খুনিদের দেশে ফেরত এনে রায় কার্যকর করার জোর দাবি জানান।