২২, জানুয়ারী, ২০২০, বুধবার | | ২৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

একটি ফুলের সাথে কথোপকথন-১

আপডেট: নভেম্বর ৫, ২০১৯

একটি ফুলের সাথে কথোপকথন-১


কাজী মোহাম্মদ শিহাবুদ্দীন (ম্যাজিশিয়ান কাজী)

প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগ থেকে বের হতেই করিডোরের ডান দিকে প্রায় ষোল পা হেটে গেলে চোখের নজরে পড়ে একটা ফুটন্ত গোলাপ। যার ভিতরে আকর্ষণীয় কিছু রহস্য খুঁজে পেলাম!
ভাবতে ভাবতে প্রায় পাশে চলে এসেছি। এমন সময় আমাকে কেউ ডাক দিয়ে বলে উঠে,
কাজী ওওওও কাজী,
ফ্রি নাকি বিজি!
আমি ডানে বামে সব দিকে তাকালাম, কাউকে দেখতে পেলাম না। একটু চিন্তিত হয়ে পড়লাম!কিরে ভুল শুনি নি তো!
পাশ থেকে আমাকে বলে উঠলো,আরে বোকা ওদিকে কি দেখছেন, আমি ডাকছি, আমি!
বুঝতে পারছিনা তবে এবার দৃষ্টি ঠিক সেই গোলাপের উপর।যেটা তার রূপ ছড়াচ্ছে বেশ কিছুদিন ধরে।
দেখনা চেয়ে আছে! কাছেও আসে না, কথা ও বলে। এত ভাবার কি আছে? আমি ডাকছি,আমি গোলাপ! মা আমায় আদর করে গোলাপী বলে।
ও তুমি!  হা হা হা কি ভাবতে কি যে ভাবছি।
তো গোলাপী, তোমাকে খুব সুন্দর নাম দিয়েছে !
আরে দাদা আমাকে তুই করে বলেন,
আমি অনেক ছোট, জন্ম হয়েছে সবে দুই একদিন।
আচ্ছা যাই হউক আচ্ছিস তো ভালো?
হ্যাঁ চলে, আপনার?
আমি তো সব সময় ভালো থাকি।
কমন ডায়লগ!  হা হা!
আচ্ছা,যদিও বা আমি সব সময় খুব বিরক্ত হয় কারণ এর আগে এই জায়গায় আরেক জন ছিলো! কত জনে ছবি সেলফি তোলতে আসতো।এখন কেউ আসে না আমার কাছে।
আচ্ছা কাজী , আমি কি খুব বিশ্রি? মাও চিন্তিত! আমাকে দিয়ে নাকি কিচ্ছু হবে না। আমারও ভালো লাগে না একা একা বসে থাকতে।
হা হা হা পাগলি তুই খুব সুন্দর তাই ভয়ে কেউ তোর পাশে আসে না।
এ্য এ্য এ্য  ঝাড়া, পাম্প দিচ্ছেন! বুঝি সব! হুমম।
আমি মে বি পচা, তাই এই ভাবে বলছেন।
আরে পাগলি তুই সত্যি খুব সুন্দর!
আচ্ছা তাই বুঝি! তাইলে প্রতিদিন আসবে আমার কাছে, সময়ের ফাঁকেফাঁকে হালকা গল্পগুজব করবো।
আচ্ছা!
দেখিয়েন কথা দিচ্ছেন, মিথ্যে যেন না হয়।
আরে না সত্যিই আসবো।
তো কি করছেন?
ক্লাসে যাবো,
আচ্ছা যান, প্রত্যেক দিন আসবেন আর কথা বলবেন।আর যদি সময় থাকে বিকেলে একবার আসবেন।
আচ্ছা। আজ তাহলে গেলাম। বিদায় নেয়ার আগে ভিতর হতে একটা সুর ভেসে আসে…

” প্রিয় ফুল, ভালো থেকো,সুখে থেকো,
নিজেকে নিজের মতো আগলে রেখো।
তোমারই প্রাণে সঁপেছি আমার মন,
তোরার কাছে খুঁজি আমি,
নিজের স্বপ্নিল একটা জীবন। “