২২, অক্টোবর, ২০২০, বৃহস্পতিবার | | ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ভিখারুন্নেছা নুন স্কুলের ছাত্রীর মৃত্যুর পর প্রিন্সিপাল নাজনীন এর হাসি!!

আপডেট: ডিসেম্বর ৭, ২০১৮

ভিখারুন্নেছা নুন স্কুলের ছাত্রীর মৃত্যুর পর প্রিন্সিপাল নাজনীন এর হাসি!!
জি. এম শরীফঃ   হে হাসি তুমি কেন কান্না হলে না?
প্রিন্সিপাল-ভাইস প্রিন্সিপালের দুর্ব্যবহারের কারণে ভিকারুননিসা নূন স্কুলের শিক্ষার্থী অরিত্রী অধিকারী আত্মহননের পর শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা যখন আন্দোলনমূখর, আত্মহত্যার প্লট/ভিট তৈরির জন্য দায়ীদের শাস্তি দাবি করেছে বিভিন্ন মহল, তখন সেই অভিযুক্ত প্রিন্সিপাল নাজনীন ফেরদৌস তাঁর কার্যালয়ে বসে অনেকগুলো টিভি ক্যামেরার সামনে গণমাধ্যম কর্মীদের সঙ্গে স্বহাস্যে কথা বলেছেন। ছবি দেখে বুঝার উপায় নেই যে, সন্তানতুল্য একজন ছাত্রীর মর্মান্তিক মৃত্যুতে তিনি আদৌ শোকাহত হয়েছেন কি-না।
কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহত হবার ঘটনার পর শাহজাহান খানের হাসি:.
দেশব্যাপী  আলোচনার শীর্ষে নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানের হাসি। জাবালে নূর পরিবহনের দুই বাসের চালকের রেষারেষির জের ধরে গত ২৯ জুলাই রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল  বিমানবন্দর সড়কে রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহত হয়। পরিবহন শ্রমিক নেতা হিসেবে নৌপরিবহনমন্ত্রীর আশ্রয়-প্রশ্রয়ে বাসচালক ও হেলপাররা প্রতিনিয়ত স্বেচ্ছাচারী হয়ে উঠছে। এমন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মন্তব্য জানতে চাইলে তিনি হাসতে হাসতে জবাব দিয়েছিলেন, ‘আজকের বিষয়ের সঙ্গে এটি রিলেটেড নয়’। হাসির এই দৃশ্যসহ সংবাদটি পরবর্তী সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। ওঠে সমালোচনার ঝড়ও।
এঘটনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পরের সোমবার শাজাহান খানকে সংশোধন হওয়ার নির্দেশ দেন। একইসঙ্গে সংযত হয়ে কথা বলারও পরামর্শ দেন  বলে জানা গেছে।
একটি সূত্র বলছে, প্রধানমন্ত্রী তাকে ধমকের সাথে বলেছেন, ‘কোথায়, কখন, কোন অবস্থায় হাসতে হয়, তাও জানেন না?
বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার সংবাদ শোনার পরেও নৌমন্ত্রীর মুখের এই হাসি দেখে অনেকেই অবাক হয়েছেন। কেউ কেউ বলেছেন, তিনি দুঃখ প্রকাশ করতে পারতেন। কেউ বলেছেন মানুষ মারা যাওয়া তার নিকট হাসির কারণ।
যেখানে এই ঘটনায় মন্ত্রীর দুঃখ প্রকাশ করার কথা, সেখানে তিনি উল্টো হাসলেন। এ কী করে সম্ভব? তিনি কী সুস্থ আছেন? এই দুই হাসির মানুষকে বলে তো লাভ নেই। তাই হাসিকে বলছি, হে হাসি তুমি কেন কান্না হলে না।