১৫, নভেম্বর, ২০১৯, শুক্রবার | | ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

পটুয়াখালী গলাচিপা উপজেলায় ঘূর্ণিঝড় বুলবুলেরপ্রভাব পড়তে শুরু করেছে

আপডেট: নভেম্বর ৮, ২০১৯

পটুয়াখালী গলাচিপা উপজেলায় ঘূর্ণিঝড় বুলবুলেরপ্রভাব পড়তে শুরু করেছে

পটুয়াখালী জেলা প্রতিনিধিমোঃ সাইফুল ইসলাম
ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাব পড়তে শুরুকরেছে উপকূলীয় গলাচিপা উপজেলায়।বৃহস্পতিবার (৭নভেম্বর) রাত ১১টা থেকেমাঝে মাঝে হালকা দমকা বাতাসের সাথে গুড়ি গুড়িবৃষ্টি হচ্ছে। শুক্রবার সকাল থেকে সারাদিন গুড়িগুড়ি বৃষ্টি ও হালকা দমকা বাতাস বইতে শুরুকরেছে। উপকূলীয় জেলেরা ঘূর্ণিঝড়েরবার্তা পেয়ে গভীর সমুদ্র থেকে গলাচিপারতীরে ফিরতে শুরু করেছে।এদিকে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবলায় গলাচিপাউপজেলায় সব ধরণের প্রস্তুতি সম্পন্নকরেছে উপজেলা প্রশাসন। শুক্রবার সকাল১০টায় উপজেরা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়দুর্যোগ প্রস্তুতি বিষয়ে জরুরী সভায় (৮নভেম্বর) উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহমো. রফিকুল ইসলাম এসব তথ্য জানান।তিনি জানান, ইতিমধ্যে উপজেলার সবকটিসাইক্লোন শেল্টার প্রস্তুত রাখা হয়েছে।অপেক্ষাকৃত দুর্যোগ ঝূঁকিপূর্ণ ইউনিয়নচরকাজল, চরবিশ্বাস, পানপট্টি, গলাচিপা সদর ইউনিয়নএবং চরবিশ্বাস ইউনিয়নের দ্বীপচর চরবাংলা,গলাচিপা ইউনিয়নের দ্বীপ চরকারফারমায় অতিরিক্তনজরদারির মধ্যে রাখা হয়েছে। এসব ইউনিয়নছাড়াও উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান,বিভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ সরকারিবেসরকারি উঁচু ভবনগুলো প্রস্তুত রাখাহয়েছে। গবাদি পশু যাতে নিরাপদে আশ্রয়কেন্দ্রে নেয়া যায় সে ব্যাপারেও ব্যবস্থানেয়া হয়েছে। এছাড়া শুকনো খাবার ওমেডিকেল ক্যাম্পের ব্যবস্থাও প্রস্তুতরয়েছে। উপজেলা সদরে কন্ট্রোল রুমখুলে সবকিছুই তদারকি করা হচ্ছে।এসময় উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুহৃদসালেহীন, উপজেলা প্রকল্পবাস্তবায়নকর্মকর্তা এসএম দেলোয়ার হোসেন, পৌরমেয়র আহসানুল হক তুহিন, অফিসার ইনচার্জআখতার মোর্শেদসহ কৃষি বিভাগ ও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।