১৩, ডিসেম্বর, ২০১৯, শুক্রবার | | ১৫ রবিউস সানি ১৪৪১

ফরিদপুরের ডিক্রিরচরে চেয়ারম্যান গ্রæপের হামলায় আহতরা হাসপাতালেও নিরাপত্তাহীনতায়!

আপডেট: নভেম্বর ১৭, ২০১৯

ফরিদপুরের ডিক্রিরচরে চেয়ারম্যান গ্রæপের হামলায় আহতরা হাসপাতালেও নিরাপত্তাহীনতায়!

ফরিদপুর প্রতিনিধি :

ফরিদপুর সদর উপজেলার ডিক্রিরচর ইউনিয়নের সিএ্যান্ডবি ঘাট এলাকায় শালিক বৈঠকে হামলার পর ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহতরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে বলে অভিযোগ তুলেছেন।

আহত ও তাদের স্বজনেরা শনিবার বিকালে সংবাদকর্মীদের জানান, গত ১৩ নভেম্বর ডিক্রিরচর ইউনিয়ন বোর্ড অফিসে একটি শালিস বৈঠক চলাকালে মতের মিল না হওয়ায় চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান মিন্টুর লোকজন লাঠিসোটাসহ দেশী অস্ত্র নিয়ে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা আনোয়ার হোসেন আবু ফকিরের লোকজনের উপর হামলা করে। ওই হামলায় আবু ফকিরের পক্ষের আহত পাঁচজনকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহতরা ও তাদের পরিবারের স্বজনেরা সাংবাদিকদের নিকট অভিযোগ করেন, চেয়ারম্যানের পক্ষের লোকজন ফের বাড়ীঘরে হামলার হুমকী দিচ্ছে। তারা আরো দাবী করেন, মিন্টুর পক্ষের লোকজন হাসপাতালেও সন্দেহজনকভাবে ঘোরাঘুরি করছে যা ভীতির সৃষ্টি করছে।

মিন্টু ফকির হামলার অভিযোগ বলেন, গ্রামে আদালতে আমার লোকেরা ভাংচুর করেনি। তারাই বরং আমাকে হত্যার উদ্দেশে এ হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছে।

এব্যাপারে কোতয়ালী থানার ওসি তদন্ত বেলাল হোসেন উভয় পক্ষের তরফ হতেই মামলা দায়েরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পুলিশ ঘটনা তদন্ত করে দেখছে। আসামীদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।