১, অক্টোবর, ২০২০, বৃহস্পতিবার | | ১৩ সফর ১৪৪২

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে নিস্তব্ধ ঢাকা কলেজ

আপডেট: নভেম্বর ২০, ২০১৯

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে নিস্তব্ধ ঢাকা কলেজ

ঢাকা কলেজ প্রতিনিধি

১৮৪১ খ্রিষ্টাব্দের ২০ই নভেম্বর তারিখে উপমহাদেশের প্রথম আধুনিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেব গড়ে উঠে ঢাকা কলেজ।ঢাকা কলেজ প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পিছনে রয়েছে দীর্ঘ ইতিহাস। ১৮৩৫ সালের ১৫ জুলাই থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে চালু হয়েছিলো ঢাকা ইংলিশ সেমিনারী যা বর্তমানে ঢাকা কলেজিয়েট স্কুল।
এ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠাতে একদিকে যেমন বদলে যেতে থাকে সমাজের সামগ্রিক চিত্র, তেমনি বিদ্যার্থীদের মানসসম্মুখে পাশ্চাত্যের কলাবিদ্যা, বিজ্ঞান এবং দর্শনকে উন্মোচিত করে। শিক্ষা এবং সমাজব্যবস্থার এ ইতিবাচক পরিবর্তনে সেসময়ের গভর্নর জেনারেল লর্ড অকল্যাণ্ড এবং জেনারেল কমিটি অব পাবলিক ইনস্ট্রাকশন কতগুলো কেন্দ্রীয় কলেজ প্রতিষ্ঠার সুপারিশ করেন। এর প্রেক্ষিতে প্রস্তাবিত ব্যয়ের কথা উল্লেখ এবং কর্তৃপক্ষ দ্বারা তার যথাযথ অনুমোদনসাপেক্ষে ১৮৪১ খ্রিষ্টাব্দে ঢাকা ইংলিশ সেমিনারী স্কুলকে একটি কলেজে বা একটি আঞ্চলিক উচ্চতর ইংরেজি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরিত করা হয়, যার নাম দেয়া হয় ঢাকা সেন্ট্রাল কলেজ যা সংক্ষেপে ঢাকা কলেজ এবং ঢাকা ইংলিশ সেমিনারী স্কুলের নাম দেওয়া হয় ঢাকা কলেজিয়েট স্কুল।বলাবাহুল্য, এ কলেজ প্রতিষ্ঠার পরপরই বদলে যায় সমগ্র ঢাকার চিত্র। ঢাকা হয়ে ওঠে সমগ্র পূর্ববাংলার ইংরেজি শিক্ষার কেন্দ্রবিন্দু।
এত আবেগ আর অনুভূতির যায়গাটি প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে আজ নিরব। দিনটিকে ঘিরে নেই কোন কর্মসূচি। এতে সাধারণ শিক্ষার্থীরা রীতিমতো ক্ষুব্ধ। তাদের এই ক্ষোভ তারা সোস্যাল মিডিয়াতে যার যার আইডিতে প্রকাশ করছে এবং এ নিয়ে বয়ে যাচ্ছে সমালোচনার ঝড় ।
একাধিক শিক্ষার্থী জানিয়েছে, একশ আটাত্তর বছরের ঐতিহ্যবাহী কলেজের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে নিস্তব্ধতা সত্যি অপমানজনক। এর দায় প্রতিষ্ঠান সংশ্লিষ্টরা এড়াতে পারবেন না। দিবসটি ঘিরে জমকালো আয়োজন করা সময়ের দাবি।
ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর নেহাল আহমেদ  বলেন, ঢাকা কলেজের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আমরা সবাই উদযাপন করতে চাই। কিন্তু প্রাচীন কলেজ হওয়ায় এর প্রতিষ্ঠাদিবস নিয়ে সুনির্দিষ্ট তথ্য আমাদের কাছে নেই। এমনকি কোন গেজেটও নেই। তাই দিনটি উদযাপন করা যাচ্ছে না।
এছাড়াও ভিন্ন ভিন্ন দুটি দিনে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করেছিলো সাবেক দুই অধ্যক্ষ তাই বিতর্ক এড়াতে আপাতত উদযাপন বন্ধ রয়েছে। তবে আগামী বছর থেকে দিবসটি উদযাপন করা হবে বলে জানান তিনি।