২৫, জানুয়ারী, ২০২০, শনিবার | | ২৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেন আশিকুর রহমান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম অধিনায়ক খন্দকার আবদুল বাতেনের ১ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে স্মৃতিচারণ ও দোয়া মাহফিল চৌগাছা রিপোর্টার্স ক্লাবের নব নির্বাচিতদের শপথ নদীকে তার আপন গতিতে চলার দিক-নির্দেশনা দিলেন নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান বোধনের আয়োজনে "চট্টগ্রাম গণহত্যা দিবস"-এর অনুষ্ঠান কুমিল্লার দেবিদ্বারে ২১০জন মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে হাকিম ভুইয়া স্মৃতি মেধা বৃত্তি`র সনদ ও পুরুস্কার বিতরণ বগুড়া সদরে দিনদুপুরে হত্যাকান্ড ! যুবলীগ নেতা গ্রেফতার নক্ষত্র ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে কৃতি শিক্ষার্থীদের পুরস্কার প্রদান

উপকূলের হাজরো মানুষ মধ্য রাতে শিল্পী সাগরের গানে মেতে উঠলো

আপডেট: জানুয়ারি ১২, ২০২০

উপকূলের হাজরো মানুষ মধ্য রাতে শিল্পী সাগরের গানে মেতে উঠলো

রাসেল কবির মুরাদ , কলাপাড়(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি ঃ বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ বার্ষিকী উপলক্ষে ‘অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ’ – শীর্ষক অনুষ্ঠানে কলাপাড়ার কৃতি সন্তান চ্যানেল আই সেরাকন্ঠ সাগর রায়ের – “সাগর পাড়ের মানু মোরা, কলাপাড়া বাড়ি, করি নাও ডিঙিতে চলাফেরা, নাইরে ঘোরা গাড়ি” সহ একাধিক আঞ্চলিক গান ও মৌলিক গান পরিবেশন করেন। শনিবার মধ্যরাতে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে পৌর শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এসব গানে গানে আনন্দ উল্লাসে মেতে ওঠে উপকূলীয় কলাপাড়ার সর্বস্তরের মানুষ। এসময় জমকালো আশতবাজিতে বর্নিল হয়ে ওঠে উপকূলের আকাশ।

এ অনুষ্ঠানে আকষ্মিকভাবে উপস্থিত হন বিআরটিএর চেয়ারম্যান কামরুল হাসান। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুনিবুর রহমানের সভাপতিত্বে এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা রাকিবুল আহসান, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মোতালেব তালুকদার, উপজেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি সৈয়দ নাসির, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহিনা পারভির সীমাসহ উপকূলের প্রায় কয়েক হাজার মানুষ।

এর আগে সন্ধ্যায় খানাবাদ ডিগ্রী কলেজের অধ্যাপক শহিদুল ইসলাম শাহিনের পরিচালনায় রাখাইন শিল্লীসহ বিএনসিসি শিল্পীদের নানা আয়োজন দর্শকদের হৃদয়ে গাঁথে। ‘জেগো ওঠো বাংলাদেশ’ গান ও নৃত্যের সাথে ভেসে ওঠে জাতীয় পতাকা। এসময় কন্ঠ শিল্পী ময়নাও বেশ কয়েকটি গান করেন। এছাড়া কলাপাড়া শিল্পী গোষ্ঠির শিল্পীরা বেশ কয়েকটি নৃত্যসহ ডিজিটাল বাংলাদেশের উপর নানা নাতির নাটিকা পরিবেশন করেন। অনুষ্ঠানে পুতুল নাচ পরিবেশন করেন কুয়াকাটা খানাবাদ ডিগ্রী কলেজের শিক্ষার্থীরা। অনুষ্ঠানের প্রধান আকর্ষন ছিল দর্শক পর্ব। বাছাইকৃত দর্শকের বিভিন্ন অঙ্গ ভঙ্গিমায় অভিনয় করানো হয়। পরে বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরন করা হয়।


আরও পড়ুন