২৫, জানুয়ারী, ২০২০, শনিবার | | ২৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেন আশিকুর রহমান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম অধিনায়ক খন্দকার আবদুল বাতেনের ১ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে স্মৃতিচারণ ও দোয়া মাহফিল চৌগাছা রিপোর্টার্স ক্লাবের নব নির্বাচিতদের শপথ নদীকে তার আপন গতিতে চলার দিক-নির্দেশনা দিলেন নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান বোধনের আয়োজনে "চট্টগ্রাম গণহত্যা দিবস"-এর অনুষ্ঠান কুমিল্লার দেবিদ্বারে ২১০জন মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে হাকিম ভুইয়া স্মৃতি মেধা বৃত্তি`র সনদ ও পুরুস্কার বিতরণ বগুড়া সদরে দিনদুপুরে হত্যাকান্ড ! যুবলীগ নেতা গ্রেফতার নক্ষত্র ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে কৃতি শিক্ষার্থীদের পুরস্কার প্রদান

লক্ষ্মীপুরে ৬ কি.মি রাস্তা জুড়ে বেহাল দশা, ভোগান্তিতে ২ লক্ষাধিক জনগন

আপডেট: জানুয়ারি ১৩, ২০২০

লক্ষ্মীপুরে ৬ কি.মি রাস্তা জুড়ে বেহাল দশা, ভোগান্তিতে ২ লক্ষাধিক জনগন

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা প্রতিনিধি

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার জকসিন থেকে ওয়াবদা অফিস পাকা রাস্তার মাঝে মাঝে কার্পেটিং উঠে গিয়ে ছোট-বড় গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় রাস্তাটির এখন বেহাল দশা। দীর্ঘদিন রাস্তাটি সংস্কার না করায় দিন দিন বাড়ছে দুর্ভোগ। স্থানীয়রা মতে, এই রাস্তাটি সংস্কার করা না হলে রাস্তাটি চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। রাস্তাটি বেহাল দশাতে পরিনত হওয়া সংস্কার করার কোন উদ্যোগ গ্রহন করেনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। এতে প্রতিনিয়তই স্কুলের শিক্ষার্থী, যানবাহন চালক, পথচারীসহ সাধারণ মানুষের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

জানা গেছে, লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ১৫ নং লাহারকান্দী, ১৭ নং ভবানীগঞ্জ,১৯ নং তেওয়ারীগঞ্জ ইউনিয়নের এই পাকা রাস্তাটি প্রায় ০৬ কিলোমিটার। রাস্তার মাঝে মাঝে কার্পেটিং উঠে গিয়ে ছোট-বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এই রাস্তা দিয়ে লক্ষ্মীপুর প্রানকেন্দ্র সদরে, জকসিন বাজরে, ভবানীগঞ্জ বাজারে, চৌরাস্তা বাজারে, মান্দারী বাজারে, প্রায় ২০/২৫ টি গ্রামের মানুষের প্রতিনিয়তই চলাচল করতে হয়। এই রাস্তাটি এলাকার মানুষের চলাচলের জন্য একমাত্র পথ হওয়ায় চরম দুর্ভোগের মধ্য দিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে তাদের। এই রাস্তার বেহাল দশার কারনে দিন দিন বাড়ছে দূর্ভোগ। শুকনো মৌসুমে চলাচল করা গেলেও চরম দুর্ভোগে পড়তে হয় বর্ষা মৌসুমে। দিনে কিংবা রাতে চলাচলের সময় রাস্তার ছোট-বড় গর্তে উল্টে পড়তে হয় ভ্যানগাড়ী, সাইকেলসহ ছোট বড়  যানবাহন। তবু এই রাস্তাটি সংস্কার করার কোন উদ্যোগ গ্রহন করেনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। দ্রুত এই রাস্তাটি সংস্কার করা হলে ওই এলাকার ২০/২৫ টি গ্রামের মানুষ এই দূর্ভোগ থেকে রক্ষা পাবে। তাই দ্রুত এই রাস্তাটি সস্কার করার দাবি জানিয়েছেন স্থানীরা।

স্থানীয় সিনজি চালক বাবুল হোসেন , মনির, সোহেল, স্বপন  আরো অনেকেই জানান, বর্তমানে এই রাস্তার বেহলা দশা। রাস্তার মাঝে মাঝে পাকার কারপেটিং উঠে গিয়ে ছোট-বড় গর্তে সৃষ্টি হয়েছে। রাস্তাটি সংস্কার না করায় দিন দিন আমাদের দুর্ভোগ বেড়েই চলেছে। রাতে বা দিনে যে কোন সময়ে গাড়ী ইঞ্জিন বিকল হয়ে বা গাড়ী উল্টে দূর্ঘটনা ঘটতে পারে।  দ্রুত এই রাস্তাটি সংস্কার করা প্রয়োজন বলে মনে করছেন তারা।

রাস্তাটি দ্রুত সংস্কারের দাবী সাধারন মানুষের,যথাযত কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করেন। 


আরও পড়ুন