২১, এপ্রিল, ২০২১, বুধবার | | ৯ রমজান ১৪৪২

দুই গ্রুপে সংগর্সে আহত অর্ধ শত

আপডেট: ডিসেম্বর ১১, ২০১৮

দুই গ্রুপে সংগর্সে আহত অর্ধ শত

 (পটুয়াখালী রাঙ্গাবালী সংবাদদা)   পটুয়াখালী ৪  একাদশ জাতীয়  সংসদ নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণার প্রথম দিনেই দেশের কয়েকটি জেলায় বিএনপির মনোনীত ধানের শীষের প্রার্থীদের গাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। ভাঙচুর করা হয়েছে অনেকগুলো গাড়ি। মঙ্গলবার (১১ ডিসেম্বর) সকাল থেকে নিকাল ৫.০০ পর্যন্ত বেশ কয়েকটি জেলায়, উপজেলায় হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে।এর মধ্য পটুয়াখালী রাঙ্গাবালী উপজেলায় বি এনপির মনোনীত প্রার্থী  এবি এম মোশাররেফ হোসেনের জনসভা লন্ডভন্ড করে দিয়েছ, আওয়ামীগ দুর্বৃত্তরা। এর ফলে পাল্টা ধাওয়া করেছে বিএনপি।যার ফলে উভয় পক্ষের অর্ধ শত নেতা কর্মি ও জনগন আহত হন। বিএনপির বড়বাইশদিয়ার যুবদলের নেতা মোঃমনির হাওলাদারের হাত ভেঙ্গে যায় ,চালিতাবুনিয়ার ছাত্রদলের সভাপতি গাজী মোঃমামুনের মাথা ফেটে যায় আরো অনেকে।আওয়ামীগের রাঙ্গাবালী উপজেলার ভাইচ চেয়ারম্যান মোঃএনামুল ইসলাম লিটু সহ আরো অনেকে। এখবর পেয়ে ২৫ থেকে ৩০জন পুলিশ  খালগোড়া বাজার আসেন, এবংলাটি সোটা নিয়ে গন হারে পিটান শুরু করেন।এ সময় বিএনপির মনোনীত প্রার্থী এবিএম মোশাররফ হোসেন সামনে আসে,এবং তাকে সামনে দেখে পুলিশ দারিয়ে যায়, এবং পুলিশ বাহিনী বলেন ১০ মিনিটের মধ্য স্থান ত্যাগ করবেন তিনি বলেন কেন আমাদেরকে পারমিশন দেয়া হয়েছে, পুলিশ বলে হ্যা তাহলে কেন মাঠ ত্যাগ করব? এবিএম মোশাররফ হোসেনের প্রশ্নের জবাব তারা না দিয়ে  তাকে স্প্রিট বোটে তুলে দেন।এর পর জান গেছে ১৫০ জন বিএনপির নেতা কর্মীর নামে মামলা দায়ের কয়েছে।