১৮, এপ্রিল, ২০২১, রোববার | | ৬ রমজান ১৪৪২

স্কুলের দায়িত্বে পিতাকে রেখে সহ-শিক্ষিকাকে নিয়ে প্রধান শিক্ষকের প্রমোদভ্রমনঃ

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২০

স্কুলের দায়িত্বে পিতাকে রেখে সহ-শিক্ষিকাকে নিয়ে প্রধান শিক্ষকের প্রমোদভ্রমনঃ

পঞ্চগড় প্রতিনিধিঃ

ষাটোর্ধ বৃদ্ধ পিতাকে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্বে রেখে সহ-শিক্ষিকাকে নিয়ে ভারতে প্রমোদভ্রমনে গিয়েছেন পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলার এক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

জাহাঙ্গীর আলম নামের ওই প্রধান শিক্ষক উপজেলার দন্ডপাল ইউনিয়নের কিসামত বাগদহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত।গত ১৮ ফেব্রুয়ারী তিনি ১৫ দিনের জন্য তার পিতা রইচ উদ্দীনকে লিখিত ভাবে এই দায়িত্বভার দেন।

এর আগে গত ১৬ ফেব্রুয়ারি তিনি ও তার স্ত্রী একই বিদ্যালয়ের সহ-শিক্ষিকা পারুল বেগম ভারত ভ্রমনের জন্য উপজেলা শিক্ষা অফিসার বরাবর ১৫ দিনের ছুটি আবেদন করেন এবং আবেদন মঞ্জুরও করেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা। পরে গত ১৯ ফেব্রুয়ারি তারা পারি জমান বিদেশে। যদিও রংপুর বিভাগীয় প্রাথমিক শিক্ষা উপ-পরিচালক খোন্দকার মোঃ ইকবাল হোসেন স্বাক্ষরিত আদেশে ভ্রমনের সময়কাল ছিলো গত ৫ জানুয়ারি থেকে ১৯ জানুয়ারি পর্যন্ত।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, পাঞ্জাবী আর লুঙ্গি পড়ে প্রধান শিক্ষকের আসন দখল করে আছেন ষাটোর্ধ রইচ উদ্দীন।বিদ্যালয়ের পাশে তার বাড়ি হওয়ায় বেশ প্রভাব খাটাচ্ছেন তিনি। বিদ্যালয় পরিচালনায় দেখাচ্ছেন কর্তৃত্বও।জানা গেছে, বিদ্যালয়ে কর্মরত মোট শিক্ষকের সংখ্যা চার জন। এর মধ্যে দুই জনের একত্রে ছুটি মঞ্জুর আর বিদেশ ভ্রমনে শিক্ষার্থীদের পাঠদানে বিঘœ ঘটছে।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আফসার আলী জানান, ওই শিক্ষক দম্পতি একত্রে ছুটি কাটানোর বিষয়ে এবং ভারত ভ্রমনে যাওয়ার সময়ও তাকে অবগত করেননি। ষাটোর্ধ বৃদ্ধকে বিদ্যালয়ের দায়িত্ব দেয়ার বিষয়েও তাকে কিছু জানানো হয়নি।

দেবীগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সামছুল আলম বলেন, চার জন শিক্ষকের মধ্যে দুজনের একত্রে ছুটি মঞ্জুর ভুলক্রমে হয়েছে। তবে বহিরাগত কাউকে দায়িত্ব প্রদান করা ঠিক হয়নি।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শহীদুল ইসলাম জানান, প্রধান শিক্ষক এভাবে দায়িত্ব হস্তান্তর করা ঠিক করেননি। এক সপ্তাহের মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে