৩১, অক্টোবর, ২০২০, শনিবার | | ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

অপারেশন ড্রাগস্ ক্লিন আকন্দবাড়িয়া : নারী মাদক ব্যাবসায়ী সহ আটক ৩

আপডেট: মার্চ ১৫, ২০২০

অপারেশন ড্রাগস্ ক্লিন আকন্দবাড়িয়া : নারী মাদক ব্যাবসায়ী সহ আটক ৩


রাজু আহাম্মেদ, চুয়াডাঙ্গা : বর্তমান যুবসমাজসহ মাদকের করাল থাবা থেকে সাধারন মানুষকে ফিরিয়ে আনতে স্বর্চ্চাার চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসন। এরি ধারাবাহিকতায় চুয়াডাঙ্গায় চলছে চুলচেরা মাদকবিরোধী অভিযান। চুয়াডাঙ্গা জেলাকে মাদকমুক্ত করার লক্ষ্যে, মাদকের বিরুদ্ধে যেতে হবে যুদ্ধে এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বাংলাদেশ সরকারের মাদকের জিরো টলারেন্স ঘোষনা  মোতাবেক চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসনের নির্দেশে চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশ অপারেশন ড্রাগস্ ক্লিন আকন্দবাড়িয়া যৌথ অভিযান পরিচালনা করেছেন। অভিযানে নারী মাদক ব্যাবসায়ী সহ ৩ জনকে আটক করেছে। শনিবার (১৪ মার্চ) বিকাল ৩ টার দিকে এঅভিযান পরিচালনা করেন।
উল্লেখ্য, চুয়াডাঙ্গার নবগঠিত দর্শনা থানাধীন বেগমপুর ইউনিয়নের আকন্দবাড়িয়া গ্রামটি মাদক খ্যাত নামে পরিচিত।
চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম চুয়াডাঙ্গায় যোগদান করার পর থেকেই মাদকের বিরুদ্ধে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ইতিমধ্যে থানা ও ক্যাম্প পুলিশ মাদক ব্যাবসায়ীকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে। মাদক নির্মুল করার জন্য চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম ৬ টি বাহিনীর সহযোগিতায় যৌথ অভিযান পরিচালনা করেন। এসময় ৩ জনকে আটক করকে সক্ষম হয়।
পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম বলেন, মাদক নির্মুল করতে এধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে। অভিযানে অংশ গ্রহণ করেন চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার,  ৬ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের সুবেদার বারেক, চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর সহকার -পরিচালক শরীয়ত উল্লাহ, র‌্যাপিড একশন ব্যাটালিয়ন ঝিনাইদহ ৬ ডিএডি আওয়াল হোসেন, বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর ২৬ নম্বর পরিচালক আমিন হোসেন। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা সদর থানা, আলমডাঙ্গা থানা, দামুড়হুদাঁ থানা, জীবননগর ও দর্শনা থানার ওসি সহ  জেলা পুলিশের কর্মকর্তাগন। এসময় চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার বলেন তরুণ প্রজন্মকে মাদকের করাল গ্রাস থেকে মুক্ত করে একটি সুন্দর সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তোলার প্রয়াসে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছেন। সেই মহান উদ্দেশ্যকে বাস্তব রূপ দিতে   চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ, ৬-বিজিবি, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর,আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী এবং র‍্যাবের সমন্বয়ে আকন্দবাড়িয়াতে টাস্কফোর্স অভিযান পরিচালনা করা হয়।