১০, জুলাই, ২০২০, শুক্রবার | | ১৯ জ্বিলকদ ১৪৪১

ঔষধ আনতে বাজারে যাওয়ায় মুক্তিযোদ্ধা পুত্রের হাত ভেঙে দিল সন্ত্রাসীরা

আপডেট: এপ্রিল ১৯, ২০২০

ঔষধ আনতে বাজারে যাওয়ায় মুক্তিযোদ্ধা পুত্রের হাত ভেঙে দিল সন্ত্রাসীরা

খায়রুল আছলমঃ গতকাল সকালে গাজীপুর জেলার কালীগঞ্জ উপজেলা বক্তারপুর ইউনিয়নের ভ্রাম্যণগাঁও’র বীর মুক্তিযোদ্ধা মানিক মিয়া ও তার নাতি অসুস্থ্য থাকায় তার পুত্র, আল আমিন ফুলদী বাজারে ঔষধের দোকানে যাবার সময় ৫ নং ওয়ার্ড সদস্য টুটুল মেম্বার তাকে লোকজন দিয়ে বাধা দেয়। 
বাধা উপেক্ষা করে ঔষধ আনতে বাজারে যা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কিন্তু বাজার থেকে ফেরার পথে ইউপি সদস্য টুটুল তার সন্ত্রাসী  লেলিয়ে মুক্তিযোদ্ধার পুত্র আল আমিনকে পিটিয়ে রক্তাত্ন  করে, দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় হঠাৎ মাটিতে পড়ে গেলে আরো পিটিয়ে জঙ্গলে ফেলে রাখে। মুক্তিযোদ্ধা সংবাদ পেয়ে নাওয়ানের মোড় সংলঙ্গ জঙ্গল থেকে আল আমিনকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ চিকিৎসকের কাছে নিলে চিকিৎসক জানান, তার হাতে ৩টি হাড়ে ফাটল হয়েছে এবং একটি ভেঙ্গেগেছে। 
বীর মুক্তিযোদ্ধা মানিক মিয়া বিষয়টি মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী আ,ক,ম মোজামেল হক, স্থানীয় সংসদ সদস্য মেহের আফরোজ চুমকি এমপি, উপজেলা র্নিবাহী কর্মকর্তা, স্থনীয় ইউপি চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান ফারুক, ইউনিয়ন আ,লীগ সভাপতিসহ বেশ কয়েকজনকে অবগত করেছেন। তারা এই ঘটনায় জড়িতদের বিচার চেয়েছেন।এ সংক্রান্ত গতকাল বিকেলে কালীগঞ্জ থানায় বিষয়টি অবগত করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মানিক মিয়া।কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এ বিষয়ে বক্তারপুর ৫ নং ওয়ার্ডের সদস্য টুটুল মেম্বারের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, প্রতিবেশী ওয়ার্ড থেকে আল আমিন নামে একটি ছেলে তাকে মারতে গেলে স্থানীয় বেশ কয়েকজন তাকে বাধা দেয়। পরে দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় পরে গিয়ে হাত ভেঙ্গেছে বলে মোবাইলটি কেটে দেয়। পরে বার বার ফোন করেও পাওয়া যায় নি উক্ত ঘটনায় ৭১ এর বীর যোদ্ধা  আবেগপ্রবণ হয়ে বলেন এ জন্যই কি দেশটা স্বাধীন করলাম, আমার ওষুধ আনত যাওয়ার কারণে আমার ছেলের হাত ভেঙে দিল।
উক্ত বিষয় সম্পর্কে জানতে চাইলে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রজন্মের আহবায়ক অহিদুল ইসলাম তুষার জানান মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপর প্রতিনিয়ত যে ঘটনা গুলো ঘটে যাচ্ছে তা দুঃখজনক,এবং কালীগঞ্জের এ ঘটনা বিষয়ে তিনি বলেন খুব দ্রুতই এ বিষয়টা সমাধান করার জন্য কাজ করা হচ্ছে এবং সমাধান হবে।