৫, জুলাই, ২০২০, রোববার | | ১৪ জ্বিলকদ ১৪৪১

ফেসবুকে সাড়া ফেলেছে শিক্ষানগরী সৈয়দপুরের ‘লাইভ শো’ অনুষ্ঠান

আপডেট: মে ২৪, ২০২০

ফেসবুকে সাড়া ফেলেছে শিক্ষানগরী সৈয়দপুরের ‘লাইভ শো’ অনুষ্ঠান


নীলফামারী প্রতিনিধিঃ চলমান করোনা পরিস্থিতিতে ঘরবন্দী শিক্ষার্থীদের জন্য ফেসবুক গ্রুপ শিক্ষানগরী সৈয়দপুরের কার্যক্রমসমূহ বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছে। করোনা প্রাদুর্ভাবের শুরুতেই সৈয়দপুরের বৃহৎ এই ফেসবুক গ্রুপে নতুনভাবে চালু করা হয় অনলাইন ক্লাস। এর পরপরই  ২৯ হাজার মেম্বারের শিক্ষানগরী সৈয়দপুর গ্রুপে শিক্ষার্থীদের জন্য অনলাইনে বিভিন্ন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। 
এরমধ্যে কবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগিতা, অনলাইন চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও ইসলামী গজল প্রতিযোগিতা অন্যতম। ইতিমধ্যে এইসব প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে উপহার হিসেবে বই ও ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয়েছে। এর বাইরেও শিক্ষানগরী সৈয়দপুর গ্রুপে অতিসম্প্রতি ‘লাইভ শো’ নামে নিয়মিত একটি টকশোর আয়োজন করা হয়েছে। যার প্রতিটি পর্বই সৈয়দপুরবাসীর মাঝে বেশ সাড়া ফেলেছে।
ঘন্টাব্যাপী চলা এই লাইভ অনুষ্ঠানে সৈয়দপুরের বিশিষ্টজনদের আমন্ত্রণ জানিয়ে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় তাদের ভাবনা ও পদক্ষেপ সম্পর্কে বিস্তৃত আলোচনা করা হয়ে থাকে। এরই মধ্যে লাইভ শো অনুষ্ঠানটির চারটি পর্ব প্রচারিত হয়েছে। শিক্ষানগরী সৈয়দপুর গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা খুরশিদ জামান কাকনের পরিকল্পনা ও সঞ্চালনায় আয়োজিত নিয়মিত এই অনুষ্ঠানে এখন পর্যন্ত অতিথি হিসেবে সাংবাদিক, চিকিৎসক সহ একাধিক  জনপ্রতিনিধিকে কথা বলতে দেখা গেছে।
স্ট্রিম ইয়ার্ড ওয়েবসাইটের মাধ্যমে করা এই লাইভ কনফারেন্স অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী পর্বে গত ১৫ ই মে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সৈয়দপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডা.আরমান হোসেন রনি। ঘন্টাব্যাপী চলা এই লাইভে তিনি নিজ অভিজ্ঞতার আলোকে সৈয়দপুরের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন এবং করোনার প্রকোপ ঠেকাতে করনীয় সম্পর্কে বিস্তারিত ধারনা দেন। 
পরের পর্বে ১৮ ই মে সদ্য করোনা থেকে আরোগ্য লাভ করা রেডিও আমার এর স্টাফ রিপোর্টার নাজমুল হুদাকে আমন্ত্রণ জানানো হয় শিক্ষানগরী সৈয়দপুরের বিশেষ এই আয়োজনে। সেদিনই করোনার রিপোর্ট নেগেটিভ আসা সাংবাদিক নাজমুল হুদা ঢাকায় নিজ বাড়িতে হোম আইসোলেশনে থেকে যুক্ত হন ‘লাইভ শো’ তে। তিনি মাত্র তিন সপ্তাহে করোনা যুদ্ধে জয়ী হওয়ার গল্প শেয়ার করেন শিক্ষানগরী সৈয়দপুরের দর্শকস্রোতাদের উদ্দ্যেশ্যে।
শিক্ষানগরী সৈয়দপুরের লাইভ শো অনুষ্ঠানের তৃতীয় পর্বে ১৯ ই মে যুক্ত হন সৈয়দপুর পৌরসভার ১১ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এরশাদ হোসেন পাপ্পু। চলমান করোনা প্রাদুর্ভাবে তিনি তার এলাকায় গ্রহণ করা পদক্ষেপসমূহ তুলে ধরেন। সেই সাথে দেশের এই ক্লান্তি লগ্নে সৈয়দপুরের স্বেচ্ছাসেবকদের লড়াকু মানসিকতার ব্যাপক প্রশংসা করেন তিনি। একইভাবে গত ২৩ ই মে শিক্ষানগরী সৈয়দপুরের এই অনুষ্ঠানে খাতামধুপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ জুয়েল চৌধুরীকেও তরুণ সাংবাদিক ও কলামিস্ট খুরশিদ জামান কাকনের প্রশ্ন-উত্তর পর্বে যুক্ত হতে দেখা যায়।
শিক্ষানগরী সৈয়দপুরের প্রতিষ্ঠাতা খুরশিদ জামান কাকন লাইভ শো’ অনুষ্ঠানের ব্যাপারে জানান, ‘আমরা এই শো এর মাধ্যমে বর্তমানে করোনা প্রাদুর্ভাব মোকাবেলায় মাঠপর্যায়ে নিরলসভাবে কাজ করা সৈয়দপুরের কৃতি সন্তানদের তুলে ধরার প্রয়াস চালাচ্ছি। তাদের কাজের ধরন ও বিস্তৃতি সম্পর্কে জানার চেস্টা করছি। জনমনের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর খোজার সর্বচ্চো প্রচেষ্টা চালাচ্ছি। আগামীতেও আমাদের এই ধারা অব্যাহত থাকবে।’