১৭, নভেম্বর, ২০১৯, রোববার | | ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

গ্রেফতার করে নির্বাচনের মাঠ উঠিয়ে দিতে পারবে না: সরোয়ার

আপডেট: ডিসেম্বর ২২, ২০১৮

গ্রেফতার করে নির্বাচনের মাঠ উঠিয়ে দিতে পারবে না: সরোয়ার

আসন্ন একাদশ জাতীয় নির্বাচনে বরিশাল সদর (৫) আসনের ঐক্যফ্রন্টের ধানের শীষের মনোনিত প্রার্থী এ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ারের নির্বাচনী প্রচার-প্রচারনাকালে ফেরী চলাচল বন্ধ করে রাখায় দীর্ঘ সময়ে অপেক্ষা করে প্রচার-প্রচারণা কর্মসূচি বাতিল করে ফিরে আসতে হয়েছে মজিবর রহমান সরোয়ারকে।

অপরদিকে ধানের শীষের আয়োজন উঠান বৈঠকের ভাংচুর করে দিয়েছে শাষকদলের নেতা-কর্মীরা। বন্দর থানা পুলিশ উক্ত এলাকার ওয়ার্ড সভাপতি তুহিন পন্ডিতকে আটক করেছে।

বরিশাল মহানগর বিএনপি সাধারন সম্পাদক জিয়া উদ্দিন সিকদার অভিযোগ করে জানান, আজ শনিবার বিকাল ৪টায় বরিশাল সদর উপজেলা ১০ ইউনিয়ন চন্দ্রমোহন এলাকায় ধানের শীষ প্রার্থী এ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ারের নির্বাচনী প্রচার-প্রচারনা ও উঠান বৈঠকে অংশ নিতে যাওয়ার পথে টুঙ্গিবাড়িয়া ইউনিয়নের নেহালগঞ্জের ফেরীটি অপরপ্রান্তে অজ্ঞাত ও রহস্যজনক কারণে নিয়ে আটকে রাখা হয়। প্রায় দু’শতাধিক ধানের শীষ সমর্থক দলীয় নেতাকর্মীদের দীর্ঘ দুঘন্টা আপেক্ষা করেন।

এসময় মজিবর রহমান সরোয়ার বন্দর থানার এস আই হেলালের সাথে যোগাযোগ করে জানতে চান ফেরী চলাচল বন্ধ কেন? এস আই হেলাল সরোয়ারের কোন কথার জবাব দিতে অপরগতা প্রকাশ করেন বলে তারা অভিযোগ করেন।
দীর্ঘ সময়ে অপেক্ষা অপরপ্রান্ত থেকে ফেরী না আসার কারনে দলীয় নেতাকর্মীদের নিরাপত্তার বিষয়ে বিবেচনা করে চন্দ্রমোহনে না গিয়ে কর্মসূচি বাতিল করে বরিশালে ফিরে আসতে বাধ্য হয়।

এছাড়া অন্যদিকে ধানের শীষ প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ারের জন্য আয়োজন করা উঠান বৈঠকের  সরকারী দলের নেতাকর্মীরা হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছে।

পরবর্তীতে মেট্রোপলিটন বন্দর থানা পুলিশ উক্ত ওয়ার্ডের সভাপতি তুহিন পন্ডিতকে কোন কারন ছাড়াই তাকে রাজনৈতিকভাবে হয়রানী ও নির্বাচনের মাঠে যেন থাকতে না পারে সে কারনেই তাকে গ্রেফতার করেছে বলে বিএনপি নির্বাচন পরিচালনা কমিটি থেকে অভিযোগ করেছে।

এ বিষয়ে ধানের শীষ প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ার তার নির্বাচনের কাজে বাধা প্রদান শুধু আওয়ামীলীগের সাথে পুলিশ ও তাদের সাথে এক হয়েছে।
তিনি বলেন সরকার দেশে এত উন্নয়ণ করেছে আর উন্নয়নের গরমে এখন ভোটের মাঠে প্রতিদ্বন্দ্বিতার প্রার্থী কাজে প্রতি মুহুর্তে বাধা দেয়ার পাশাপাশি  ঐক্যফ্রন্টের নেতাকর্মীদের পুলিশ ব্যবহার করে গন গ্রেফতার করে খালী মাঠে আরেকটি নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করার পায়তারা শুরু করেছে।
তারা যতই নির্বাচনের মাঠে পুলিশ দিয়ে গ্রেফতার করে আমাদেরকে নির্বাচনের মাঠ উঠিয়ে দিতে পারবে না।
অন্যদিকে সরোয়ার দিনব্যাপি নগরীর পোর্টরোর্ড কলাপট্রি, হাটখোলা সহ বিভিন্ন এলাকায় ধানের শীষ প্রতীকের জন্য ভোট প্রার্থনা গণসংযোগ ও প্রচার-প্রচারণাকালে।