৮, ডিসেম্বর, ২০১৯, রোববার | | ১০ রবিউস সানি ১৪৪১

জয়পুরহাটে শ্রেনী কক্ষের অভাবে শিক্ষক অফিস রুমেই পাঠদান

আপডেট: জানুয়ারি ১৬, ২০১৯

জয়পুরহাটে শ্রেনী কক্ষের অভাবে শিক্ষক অফিস রুমেই পাঠদান

মোঃ আহসান হাবিব (বাপ্পি) পাঁচবিবি (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি:: জয়পুরহাটজেলার পাঁচবিবি উপজেলার সীমান্তের পাড়ে বাগজানা ইউনিয়নের কয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শ্রেণীকক্ষের অভাবে বাধ্য হয়ে অফিস রুমেই চলছে পাঠদান। আর অফিসে শিক্ষকদের মধ্যে কথপোকথন বা কোন ছাত্রর অভিভাবক প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে কিছু বিষয়ে আলোচনা করায় ছাত্রছাত্রীদের মনোনিবেশ যায় সেদিকে। এতে করে ব্যহত হচ্ছে শিক্ষার সঠিক পরিবেশ।সরেজমিনে দেখাযায়, বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক অফিস রুমেই ৫ম শ্রেণীর ২২ জন ছাত্রছাত্রীকে পাঠদান করছে। বিদ্যালয়ে অফিস ও শ্রেণীকক্ষ মিলে ৪টি রুম। প্রথম শিপ্টে শিশুশ্রেণী হতে দ্বিতীয় শ্রেণী পর্যন্ত পাঠদানের সমস্য হয়না, কেবল দ্বিতীয় শিপ্টেই শ্রেণীকক্ষের সংকট হয় বলেন প্রধান শিক্ষিকা রোকসানা বেগম। তিঁনি আরো বলেন সামনের জুন মাসে সরকারি কিছু অর্থ বরাদ্দ পেলে আমরা শিক্ষকরাও কিছু সহযোগিতা করে একটা টিনশেডের ঘর তৈরী করব ঠিক করেছি। অফিসেই শিক্ষকরা তোমাদেরকে পাঠদান করে এতে সমস্যা হয় কি জানতে চাইলে ৫ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী নাজমা ও মহাদ্দিস বলেন কিছুটা হয়।উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আমি ক’মাস হলো এখানে যোগদান করেছি বিষয়টা জানি এবং ইতিমধ্যেই নতুন বিল্ডিংয়ের জন্য বরাদ্দ চেয়ে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে তা অবহিত করা হয়েছে।