২২, এপ্রিল, ২০২১, বৃহস্পতিবার | | ১০ রমজান ১৪৪২

বাঘারপাড়ায় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রচারণায় প্রার্থীর স্ত্রীরা

আপডেট: মার্চ ২৪, ২০১৯

বাঘারপাড়ায় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রচারণায় প্রার্থীর স্ত্রীরা

শান্ত দেবনাথ,বাঘারপাড়া(যশোর) প্রতিনিধিঃ আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের মাঠে স্বামী প্রার্থী, পক্ষে স্ত্রীরা নির্বাচনী যুদ্ধে রাত-দিন এক করে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। পাড়া মহল্লা দূর্গম গ্রামে তৃনমুল পর্যায় ছুটছেন ভোটারদের কাছে একটা মূল্যবান ভোট পাওয়ার আশায়। পাড়া এলাকায় স্থানীয় দেরকে নিয়ে বিভিন্ন সমাবেশ করে যাচ্ছে।

উপজেলার বিভিন্ন এলাকা যেয়ে ভোটারদের দুয়ারে দুয়ারে গিয়ে স্বামীর পক্ষে ভোট চাইছেন স্ত্রীরা। নির্বাচনের আর মাত্র ছয় দিন বাকী তাই একেবারেই সময় নষ্ট করছেন না প্রার্থী ও প্রার্থীর স্ত্রীরা।

দেখা গেছে, স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মঞ্জুর রশিদ স্বপনের সহধর্মিণী নাছিমা সুলতানা তার পক্ষে সকাল থেকে দিন গভীর রাত পর্যন্ত বিরতিহীন প্রচারণায় অংশ নিয়ে তার স্বামীর (মোটরসাইকেল) প্রতীকের পক্ষে ভোট চাইছেন।

সম্প্রীতি নাছিমা সুলতানা গত এক সপ্তাহে দিন-রাত প্রচারণা চালান নারিকেলবাড়িয়া ইউনিয়নের শ্রীরামপুর, বিরামপুর, দয়রামপুর, ইন্দ্রা, রায়পুর ইউনিয়নের শালবরাট, শেখেরবাতান, রামকান্তপুর সহ আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় ।

নাছিমা সুলতানা প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চালিয়ে যাচ্ছেন প্রচারণা বা সভা। তিনি ধারাবাহিকভাবে ভোটারদের কাছে গিয়ে স্বামীর পক্ষে নানা প্রতিশ্রুতিও দিয়ে যাচ্ছেন। এ বিষয়ে নাছিমা সুলতানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি রাজনীতির মানুষ না হলেও স্বামীর কারনে বাঘারপাড়ার রাজনীতি টা খুব কাছ থেকে দেখেছি। মানুষের কাছ থেকে আশানুরুপ সাড়া পাচ্ছি বলে অতি কষ্ট হলেও সাধারণ ভোটারদের সমর্থন চেয়ে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিচ্ছি। আমার প্রচারণায় আমি নারীদের সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত, বাল্য বিবাহ, যৌতুক বিরোধী কর্মকান্ড কে গুরুত্ব দিয়ে ভোটারদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

আবার, স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী জেলা আওয়ামীলীগ সদস্য নাজমুল ইসলাম কাজলের (আনারস) প্রতীকের পক্ষে প্রচারণায় নেমেছেন তার সহধর্মিণী সাথী ইসলাম। হেভিওয়েট এ প্রার্থীর পক্ষে প্রতিদিনই তিনি (সাথী ইসলাম) লিফলেট হাতে ঘুরছেন উপজেলার এ-প্রান্ত থেকে ও-প্রান্ত।

এদিকে স্ত্রীরা প্রচারণা যুদ্ধে নামায় কিছুটা হলেও স্বস্তিতে আছেন প্রার্থী স্বামীরা। যেসব জায়গায় তারা যেতে পারছেন না সেসব জায়গায় স্ত্রী, পুত্র ও পরিবারের সদস্যরা যাচ্ছেন। দু’প্রার্থী পরিবারের সকল সদস্য মিলে ভোটারদের কাছে ছুটে যাচ্ছে, আর আগামী পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নির্বাচিত হয়ে জনসাধারণের উন্নয়নের কথা বলে সবিনয়ে ভোট ভিক্ষা চাইছেন