১০, মে, ২০২১, সোমবার | | ২৮ রমজান ১৪৪২

আদিতমারীতে সিমান্ত এলাকার বিভিন্ন স্থানে কৃষকের মাঠে দেখা যাচ্ছে পাকা ধান

আপডেট: অক্টোবর ১৪, ২০১৯

আদিতমারীতে সিমান্ত এলাকার বিভিন্ন  স্থানে কৃষকের মাঠে দেখা যাচ্ছে পাকা ধান

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

প্রতি বছরের মত এবছরও
রুপা আমণের চলতি মৌসুমে উত্তরাঞ্চলের লালমনিরহাটের আদিতমারীতে সিমান্ত এলাকার বিভিন্ন
স্থানে কৃষকের মাঠে দেখা যাচ্ছে পাকা ধান।
সিমান্তে আগাম চাষকৃত কয়েকটি
এলাকায় বিএডিসি হাইব্রীড ৫৪ গুটিস্বর্না
বিআর এগারো এসি আই জাতের ধানগুলো পাকতে শুরু হয়েছে। এমনকী?
সিমান্তের বালাটারী ও দুলালী ময়নারচওড়া গ্রামে গতকাল বিএডিসি ৫৪
জাতের এই ধান কাটতে দেখা যায়।
উক্ত এলাকার কৃষক মোঃআসাদুল ইসলাম শ্রী ভবেশ চন্দ্র রায় ও জহুরুল হক
ধান কাটা ও মাড়াইয়ের কাজ সম্পূর্ণ করেন।কৃষক মোঃআসাদুল ইসলাম ২০ শতাংশক জমিতে বিএডিসি ৫৪ জাতের ধান চাষ করেছিলেন এবং বাকী দুইজন
কৃষক ২৭শতাংশক ও ১৫ শতাংশক জমিতে অন্য জাতের ধান চাষ করেছিলেন
বলে জানান তারা।প্রতি বছরের মত এবছর আমণের আশানুরূপ ফলনও ভাল
হয়েছে এ কথাও জানান তারা।এছাড়াও
সিমান্ত এলাকাসহ উপজেলার বিভিন্ন
এলাকাতে অনন্য যে ধানগুলো চাষ করা
হয়েছে মাঠ জুড়ে দেখা যায় আংশিক
মাঠের ধান পূর্নাঙ্গ ভাবে বেড়িয়েছে ও  কত কত মাঠে আবার দেখা যায় কেবলমাত্র
ধান বের হতে শুরু হয়েছে এবং বাকী মাঠে
সবে মাত্র ধান গাছ গুলো তরতাজা ও লম্বা এবং সতেজ হয়ে উঠেছে।কথা হয়
সিমান্ত এলাকার কৃষক মোঃ গেন্দামিয়া
রহমান আলী ওয়াহেদ আলী করিমউদ্দিন
বাদশা আলম সহ আরও অনেকের সাথে।
এই প্রসঙ্গে তারা বলেন, যে ধানগুলো একেবারেই পরিপূর্ণ ভাবে বের হয়েছে সেগুলো কার্ত্তিক মাসের ১০-১৫ দিনের -মধ্যে কাটা যাবে ।এবং যেগুলো ধান আবার কেবল মাত্র বের হতে শুরু হয়েছে সেগুলো ধান অঘ্রাহনের শুরুতেই কাটা যাবে এবং যেগুলো আবার সবেমাত্র তরতাজা হয়ে উঠেছে সেগুলো অঘ্রাণের প্রায় শেষ নাগাদ কাটা যাবে বলে একথা
জানান তারা।