১৪, মে, ২০২১, শুক্রবার | | ২ শাওয়াল ১৪৪২

কুড়িয়ে পাওয়া শিশুটি এমপির কোলে

আপডেট: অক্টোবর ১৯, ২০১৯

কুড়িয়ে পাওয়া শিশুটি এমপির কোলে

মোঃ আবু নাঈম, পঞ্চগড়:

পঞ্চগড়ে রাস্তা থেকে কুড়িয়ে পাওয়া এক মাস বয়সী ফুটফুটে কন্যা শিশুটিকে হাসপাতালে ভর্তি করার পর শনিবার দুপুরে দেখতে যান পঞ্চগড়-১ আসনের সংসদ সদস্য মজাহারুল হক প্রধান এবং বেশ কিছু সময় তিনি শিশুটিকে কোলে নিয়ে রাখেন। এসময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, শিশুটিকে দত্তক নেওয়ার জন্য অনেক নিঃসন্তান দম্পতি আগ্রহি। যদি তার বাবা মাকে পাওয়া না যায় তাহলে আইনি প্রক্রিয়ায় শিশুটিকে হস্তান্তর করা হবে। তিনি আরো বলেন, আমি চাই শিশুটি এমনভাবে বেড়ে উঠুক যেন সে বড় হয়ে অভিভাবকের অভাববোধ করতে না পারে। এদিকে শিশুটিকে হাসপাতালে ভর্তি করার পর থেকেই নিঃসন্তান দম্পতিরা ভির করছে। পঞ্চগড় শহরস্থ জালাসী এলাকার সুমন নামের এক সৌদি প্রবাসী (নিঃসন্তান) শিশুটিকে দত্তক নেওয়ার জন্য ঘটনার পর থেকেই হাসপাতালে দিনাতিপাত করছেন। তিনি বলেন, আমি ১৪ বছর আগে বিয়ে করেছি এতদিনেও আমার স্ত্রীর কোন সন্তান হয়নি আমি শিশুটিকে নিজের সন্তানের মত লালন-পালন করতে চাই। প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার রাতে পঞ্চগড় জেলা শহরের পৌর এলাকার কামাত পাড়ায় রাস্তার পাশে পরিত্যক্ত স্থান থেকে একটি কন্যা শিশুকে উদ্ধার করে সদর থানা পুলিশ। বর্তমান শিশুটিকে পঞ্চগড় সদর হাসপাতালের বিশেষ শিশু পরিচর্চা কেন্দ্রে রাখা হয়েছে। জানা যায়, পঞ্চগড় সদর উপজেলার অমরখানা ইউনিয়নের ভিতরগর এলাকার গৃহবধূ রিমু আক্তার দুই বছর আগে পরকীয়ার জের ধরে দিনাজপুরের পার্বতীপুর এলাকার এক ট্রাক চালকের হাত ধরে উধাও হন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ওই গৃহবধূ তার নানাবাড়ি জেলা শহরের কামাতপাড়া এলাকায় এসে পেয়ারা বেগম নামে আরেক গৃহবধূকে তার একমাস বয়সী কন্যা শিশুটিকে দত্তক নিতে বলেন। এতে পেয়ারা বেগম অস্বীকৃতি জানালে পেয়ার বেগমের প্রতিবেশী অশোক চন্দ্র মদকের বাড়ির একটি গলিতে শিশুটিকে রেখে পালিয়ে যান মা রিমু আক্তার। রাতে পরিত্যক্ত অবস্থায় শিশুটিকে পরে থাকতে দেখে স্থানীয়রা থানায় খবর দেন। পরে পুলিশ এসে শিশুটিকে উদ্ধার করে পঞ্চগড় সদর হাসপাতালে নিয়ে যান।